উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam) আসন্ন, চোখ বুলিয়ে নিন ইতিহাসের লাস্ট মিনিট সাজেশনে

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam) আসন্ন, চোখ বুলিয়ে নিন ইতিহাসের লাস্ট মিনিট সাজেশনে

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছে উচ্চমাধ্যমিক (HS Exam)। সম্প্রতি ভোটের জন্য একাধিকবার সূচি বদল হয়েছে। তবে পরীক্ষার প্রস্তুতিতে তার প্রভাব পড়তে দিলে চলবে না। গত দু’বছরে স্কুলের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ ছিল না ছাত্র-ছাত্রীদের। তবে অনলাইনে পড়াশোনা চালু রেখেছিলেন পড়ুয়ারা। এতদিন পরে অবশেষে স্বাভাবিক হয়েছে জীবনযাপন। তাই এবছর অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (West Bengal Council Of Higher Secondary Education)। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে যাঁদের ইতিহাস (History) বিষয়টি রয়েছে, তাঁরা কীভাবে প্রস্তুত হবেন, সেই বিষয়ে স্বচ্ছ ধারণা দিতে উদ্যোগী বঙ্গভূমি লাইভ। জেনে নিন বঙ্গভূমি লাইভ-এর পক্ষ থেকে ইতিহাসের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সাজেশন।

উচ্চমাধ্যমিকের নম্বর বিভাজনে সর্বমোট ১০০ নম্বরের মধ্যে ২০ নম্বর প্রোজেক্টের জন্য বরাদ্দ রয়েছে। বাকি ৮০ নম্বরে হবে লিখিত পরীক্ষা।

এবার উচ্চমাধ্যমিকের পরিবর্তিত সিলেবাসে যে যে চ্যাপ্টারগুলি রয়েছে সেগুলি হল :

▪️প্রথম অধ্যায় – অতীত স্মরণ
▪️তৃতীয় অধ্যায় – ঔপনিবেশিক আধিপত্যের প্রকৃতি : নিয়মিত ও অনিয়মিত সাম্রাজ্য
▪️চতুর্থ অধ্যায় – সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া
▪️পঞ্চম অধ্যায় – ঔপনিবেশিক ভারতের শাসন
▪️ষষ্ঠ অধ্যায় – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ এবং উপনিবেশসমূহ

দ্বিতীয়, সপ্তম এবং অষ্টম অধ্যায় এবারের সিলেবাসে নেই। 

প্রশ্ন ও নম্বরের ভাগ :
৮০ নম্বরের মধ্যে ২৪ নম্বর থাকবে বহুবিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন বা এমসিকিউ (MCQ)। এই বিভাগের প্রশ্নের জন্য কোনও বিকল্প বা অথবা নেই। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১।

পরবর্তী বিভাগে ১৬টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এগুলি সবই অল্প কথায় উত্তর দেওয়ার প্রশ্ন, যার চলতি নাম সর্ট আন্সার টাইপ (Short Answer Type)। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১।

বাকি ৪০ নম্বর হল রচনাধর্মী প্রশ্ন। এক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীদের মোট ৫টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ৮।

রচনাধর্মী প্রশ্নের ক্ষেত্রে বিকল্প থাকবে। প্রথম ৩টি চ্যাপ্টার অর্থাৎ অতীত স্মরণ, ঔপনিবেশিক আধিপত্যের প্রকৃতি ও সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া থেকে ৪টি প্রশ্নের মধ্যে মোট ৩টি করতে হবে এবং ঔপনিবেশিক ভারতের শাসন ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ এবং উপনিবেশসমূহ এই ২টি চ্যাপ্টার থেকে ৩টি প্রশ্নের মধ্যে মোট ২টি করতে হবে। 

রচনাধর্মী প্রশ্নের জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন :

১. অতীতকে স্মরণ করার ক্ষেত্রে কিংবদন্তি এবং স্মৃতিকথার ভূমিকা আলোচনা কর ৷
২. নানকিং ও তিয়েনসিনের সন্ধির শর্তগুলি আলোচনা কর ৷
৩. ঔপনিবেশিক ভারতে অবশিল্পায়নের কারণ ও ফলাফল আলোচনা কর ৷
৪. বাংলার নবজাগরণের প্রকৃতি ও সীমাবদ্ধতা বিষয়ে আলোচনা কর ৷
৫. রাওলাট আইনের উদ্দেশ্য কী ছিল এবং গান্ধিজি কেন এই আইনের বিরোধিতা করেন?
৬. ভারতবর্ষের স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু ও আজাদ-হিন্দ-বাহিনীর অবদান আলোচনা কর ৷
৭. মিউজিয়াম বা জাদুঘরের কার্যাবলী আলোচনা কর / মিউজিয়ামের প্রকারভেদ সম্বন্ধে আলোচনা কর ৷
৮. ভারতের রেলপথ প্রবর্তনের উদ্দেশ্য ও ফলাফল আলোচনা কর ৷
৯. ক্যান্টন বাণিজ্যের বৈশিষ্ট্য ও পতনের কারণ আলোচনা কর ৷
১০. সমাজ ও শিক্ষাসংস্কারে রাজা রামমোহন রায়ের অবদান আলোচনা কর ৷
১১. ১৯৪৬ সালে নৌবিদ্রোহের কারণ ও তাৎপর্য আলোচনা কর।
১২. ভারত ছাড়ো আন্দোলনের ঐতিহাসিক তাৎপর্য ব্যাখ্যা কর এবং এই আন্দোলনে মহিলাদের অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে আলোকপাত কর। 
১৩. স্যার সৈয়দ আহমেদ এর নেতৃত্বে আলিগড় আন্দোলন সম্পর্কে আলোচনা কর।
১৪. পেশাদারী ইতিহাস বলতে কী বোঝ? অপেশাদার ইতিহাসের সঙ্গে পেশাদার ইতিহাসের পার্থক্য আলোচনা কর।
১৫. ব্রিটিশ শাসনকালে আদিবাসী ও দলিত আন্দোলনের কারণ আলোচনা কর।
১৬. হো-চি-মিনের নেতৃত্বে ভিয়েতনামের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে আলোচনা কর।
১৭. জালিয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষাপট এবং এর গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা কর।
১৮. পঞ্চাশের মন্বন্তরের কারণ ও ফলাফল আলোচনা কর।
১৯. ৪ মে আন্দোলনের কারণ ও ফলাফল আলোচনা কর।
২০. সমাজ ও শিক্ষাসংস্কারে বিদ্যাসাগরের অবদান আলোচনা কর।
২১. চীনের ওপর আরোপিত অসম চুক্তিগুলি সম্পর্কে আলোচনা কর।
২২. ব্রিটিশ ইস্ট-ইন্ডিয়া-কোম্পানির ভূমিরাজস্ব নীতিগুলি সম্পর্কে আলোচনা কর।
২৩. মর্লে-মিন্টো (১৯০৯ খ্রি.) শাসন-সংস্কার প্রসঙ্গে যা জান লেখ।
২৪. মন্টেগু-চেমসফোর্ড (১৯১৯ খ্রি.) শাসন-সংস্কার বিষয়ে যা জান লেখ।
২৫. ১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দের ভারত-শাসন আইন সম্পর্কে যা জান লেখ।

সারা বছরের অনলাইন পড়াশোনাকে শেষ মুহূর্তে ঝালিয়ে নেওয়ার জন্য ইতিহাসের এই চটজলদি সাজেশন পরীক্ষার্থীদের আখেরে কাজে লাগবে বলেই আশা করা যায়। এরই সঙ্গে ইতিহাস সহ আগামী সমস্ত পরীক্ষাগুলির জন্য বঙ্গভূমি লাইভ-এর তরফ থেকে উচ্চমাধ্যমিক (HS Exam) পরীক্ষার্থীদের জন্য রইল একরাশ শুভেচ্ছা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.