প্রশ্নপত্রে আসতে চলেছে বড় ধরনের পরিবর্তন! উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (hs exam) প্রসঙ্গে জানালো সংসদ

প্রশ্নপত্রে আসতে চলেছে বড় ধরনের পরিবর্তন! উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (hs exam) প্রসঙ্গে জানালো সংসদ

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: সামনেই হতে চলেছে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam)। গত বছর অতিমারীর কারণে অফলাইনে পরীক্ষা দিতে পারেননি উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা। এ বছর অতিমারী পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। সেই কারণে এই বছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা অফলাইনেই নেওয়া হবে জানিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (WBCHSE)। এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্রেও বদল আনা হবে জানাল তারা। মূলত পরীক্ষায় নকল আটকাতে উচ্চমাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে (Question Paper) বদল ঘটানো হতে চলেছে।

কোভিডের প্রকোপ যেহেতু এখনও সম্পূর্ণ নির্মূল হয়ে যায়নি, সেই কারণে এবার হোম সেন্টারেই হতে চলেছে উচ্চমাধ্যমিক (HS Exam) পরীক্ষা।জানা গিয়েছে, প্রতি বছরই উচ্চমাধ্যমিকে পরীক্ষার্থীদের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস, উত্তর নকল ইত্যাদি সম্পর্কিত নানা বিষয় প্রকাশ্যে আসে। এবার তা আটকাতে উদ্যোগী হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রগুলিতে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে উদ্যোগী হলো তারা।

উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ জানিয়েছে, পরীক্ষার সময় বিভিন্ন বিষয়ে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের ওপর থাকবে একাধিক সেট। যাতে পরীক্ষায় নকল আটকানো সম্ভব হয়। যদি কোনও কারণে উচ্চমাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার মতো ঘটনা ঘটে, তবে সঙ্গে সঙ্গে প্রশ্ন পাল্টে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে তারা। তবে পরীক্ষা শুরুর আগে কোনওভাবেই জানা যাবে না, কোন প্রশ্নে পরীক্ষা হবে। একেবারে শেষ মুহূর্তে জানা যাবে, কোন প্রশ্নে পরীক্ষা হবে।

২০২০ সালের তুলনায় এই বছর উচ্চমাধ্যমিকের (HS Exam) পরীক্ষাকেন্দ্রও বাড়ানো হয়েছে। মোট পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা ৬৭২৭ টি। পরীক্ষার্থীরা নিজের স্কুলেই পরীক্ষা দেবেন। এর পাশাপাশি প্রতি বছরের মতো এ বছরও পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে কোনও ইলেকট্রনিক ডিভাইস বা মোবাইল থাকলে তাঁকে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। যেদিনগুলিতে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা থাকবে, সেদিন পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে ১০০ কিমি পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হবে।

আসানসোল লোকসভা ও বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনের (by election) কারণে এবার উচ্চমাধ্যমিকের (HS Exam) সূচিতেও বদল ঘটেছে। উচ্চমাধ্যমিকের পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী ১ এপ্রিল প্রথম ভাষার পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। ৪ এপ্রিল দ্বিতীয় ভাষার, ৬ এপ্রিল হেলথ, আইটি ও আইটিএস সংক্রান্ত বিষয়ের, ৮ এপ্রিল জীববিজ্ঞান, বিজনেস স্টাডিস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ের, ১১ এপ্রিল গণিত, মনোবিজ্ঞান, নৃবিজ্ঞান, কৃষিবিদ্যা ও ইতিহাস বিষয়ের, ১২ এপ্রিল কম্পিউটার সায়েন্স, কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন, পরিবেশবিদ্যা, শারীরশিক্ষা, সঙ্গীত ও ভিজ্যুয়াল আর্টস বিষয়ের, ১৪ এপ্রিল বাণিজ্যিক আইন, দর্শন ও সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের, ১৬ এপ্রিল পদার্থবিদ্যা, পুষ্টিবিজ্ঞান, শিক্ষাবিজ্ঞান ও হিসাববিদ্যা বিষয়ের, ১৮ এপ্রিল রসায়নবিদ্যা, অর্থনীতি, সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ, সংস্কৃত, আরবি, ফারসি বিষয়ের এবং ২০ এপ্রিল স্ট্যাটিটিক্স, ভূগোল, হোম সায়েন্স ইত্যাদি বিষয়ে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। এবার নতুন সূচি অনুযায়ী ২ এপ্রিল হবে প্রথম ভাষার পরীক্ষা। ৪ এপ্রিল দ্বিতীয় ভাষার, ৫ এপ্রিল স্বাস্থ্যবিদ্যা, অটোমোবাইল, আইটি ও আইটিইস ইত্যাদি ভোকেশনাল বিষয়ের পরীক্ষা হবে। এরপর উপনির্বাচনের কারণে পরের কয়েকদিন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা স্থগিত থাকবে। এরপর ১৬ এপ্রিল গণিত, সাইকোলজি, অ্যান্থ্রোপলজি ও ইতিহাস বিষয়ের, ১৮ এপ্রিল অর্থনীতির, ১৯ এপ্রিল কম্পিউটার সায়েন্স, মডার্ণ কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন, পরিবেশবিদ্যা, মিউজিক, স্বাস্থ্যবিদ্যা ও ভিজ্যুয়াল আর্টসের, ২০ এপ্রিল কমার্শিয়াল ল, দর্শন ও সমাজবিদ্যার, ২২ এপ্রিল পদার্থবিদ্যা, পুষ্টিবিদ্যা, শিক্ষাবিজ্ঞান ও হিসাবশাস্ত্রের, ২৩ এপ্রিল স্ট্যাটিটিক্স, ভূগোল, হোম ম্যানেজমেন্ট বিষয়ের, ২৬ এপ্রিল সাংবাদিকতা ও গণজ্ঞাপন, রসায়নবিদ্যা, সংস্কৃত, পারসি, আরবি ও ফরাসির এবং ২৭ এপ্রিল জীববিদ্যা, বিজনেস স্টাডিজ ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষা হবে।

এর আগে জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার জন্য উচ্চমাধ্যমিকের (HS Exam) কয়েকটি পরীক্ষার দিন বদল হয়েছিল। উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের বড় অংশ সর্বভারতীয় জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় বসে। সেই কারণে পরীক্ষার সূচি বদল করতে হয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য।

উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, আগামী ২৩ এপ্রিল রাজ্যের জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তার পূর্বেই হবে সর্বভারতীয় জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষা। এই পরীক্ষার আয়োজন করে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি (এনটিএ)। পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ সূত্রে খবর, চলতি বছর প্রায় ৮ লক্ষ পরীক্ষার্থী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam) দিতে চলেছেন। কিন্তু দেখা যায়, সর্বভারতীয় সংস্থা ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি জয়েন্ট এন্ট্রান্স মেন পরীক্ষার যে সূচি ঘোষণা করেছে, তার সঙ্গে একইদিনে উচ্চমাধ্যমিকের একটি পরীক্ষা পড়ে যাচ্ছে। যাঁরা পদার্থবিদ্যা, গণিত এবং রসায়ন নিয়ে পড়েন, তাঁদের একটা বড় অংশ এই পরীক্ষায় বসেন। ফলে একইদিনে পরীক্ষা হলে অত্যন্ত সমস্যার মধ্যে পড়বেন তাঁরা। তাই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সূচি বদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। এবার উপনির্বাচনের কারণে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সূচিতে বদল ঘটল। জানা গিয়েছে, নতুন সূচি অনুযায়ী ২ এপ্রিল থেকে শুরু হবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষ হবে ২৭ এপ্রিল। সবশেষে, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা যাতে ছাত্রছাত্রীদের খুব ভালো হয় তার জন্য বঙ্গভূমি লাইভ-এর তরফ থেকে অনেক শুভেচ্ছা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.