পারলেন না সুব্রত ভগ্নি তনিমা, নজরে থাকা ৬৮ ওয়ার্ডে ফের জয়ী সুদর্শনা

Home কলকাতা পারলেন না সুব্রত ভগ্নি তনিমা, নজরে থাকা ৬৮ ওয়ার্ডে ফের জয়ী সুদর্শনা
পারলেন না সুব্রত ভগ্নি তনিমা, নজরে থাকা ৬৮ ওয়ার্ডে ফের জয়ী সুদর্শনা

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: বালিগঞ্জে প্রয়াত সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের পাড়ার, ৬৮  ওয়ার্ডে  বিদায়ী কাউন্সিলর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়কেই নিজেদের পুর প্রতিনিধি হিসেবে শেষমেশ বেছে নিলেন  এলাকার মানুষ। তৃণমূলের টিকিট পাওয়া নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে প্রথম থেকেই নজরে ছিল বালিগঞ্জের ৬৮ নম্বর ওয়ার্ড। এই ওয়ার্ডে সুব্রতের বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায়ের নাম প্রথমে ঘোষণা করা হয়েছিল। সেই মতো তিনি প্রচার ও দেওয়াল লিখনও শুরু করে দেন। এই অবস্থায় তাঁকে প্রতীক না দিয়ে অপেক্ষা করতে বলেন দলীয় নেতৃত্ব। বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা হতে শুরু করে। এরপর তনিমাকে সরিয়ে সুদর্শনাকেই প্রার্থী করে তৃণমূল। ক্ষোভে নির্দল প্রার্থী হিসেবে ওই কেন্দ্রেই দাঁড়ান তনিমা। কিন্তু শেষমেশ জিতে গেলেন সুদর্শনা। ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে জয় পেলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের স্নেহধন্যা তৃণমূল প্রার্থী সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়। জয়ের ব্যবধান ১,৮৩২। সুদর্শনার প্রাপ্ত ভোট-৪৩৩৭। আর তনিমার প্রাপ্ত ভোট ২৫০৫।

তৃণমূল সূত্রের খবর, ওই কেন্দ্রে সুব্রতর অন্য এক আত্মীয়কে প্রার্থী করার জন্য পরিবারের ভিতর থেকেই প্রস্তাব এসেছিল। সেই টানাপড়েন বাড়তে শুরু হয়েছিল। অবশেষে সুদর্শনাকেই ফের প্রার্থী করা হয়। তনিমা গতবার ৮৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জিতেছিলেন। সেখানে এ বার অন্য মহিলা প্রার্থী দিয়েছিল তৃণমূল।

দীর্ঘ দু’দশক ধরে সাংবাদিকতা করার সুবাদে সাধারণ মানুষের সঙ্গে অনায়াসে মিশে যেতে পারেন সুদর্শনা। তাঁর সহজাত সেই প্রবৃত্তিকেই কাউন্সিলর হিসেবে কাজে লাগিয়েছিলেন তিনি। ম্যান্ডেভিলা গার্ডেনস কিংবা বালিগঞ্জ প্লেসের মতো অভিজাত এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কাঁকুলিয়া কিংবা জামির লেনের বস্তিবাসী, সমাজের উঁচুতলা থেকে নিচুতলা, সবার কাছেই নিজেকে গ্রহণযোগ্য করে তুলেছিলেন  সুদর্শনা। নিজের রাজনৈতিক মেন্টর, সদ্য প্রয়াত সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে জয় উৎসর্গ করেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.