‘অত্যন্ত উদ্বিগ্ন’! সমকামী অধিকারে আগল দিতে আমেরিকার নতুন আইনের বিরোধিতায় অ্যাপল (Apple) সিইও টিম কুক

Home বিদেশ-বিভূঁই ‘অত্যন্ত উদ্বিগ্ন’! সমকামী অধিকারে আগল দিতে আমেরিকার নতুন আইনের বিরোধিতায় অ্যাপল (Apple) সিইও টিম কুক
‘অত্যন্ত উদ্বিগ্ন’! সমকামী অধিকারে আগল দিতে আমেরিকার নতুন আইনের বিরোধিতায় অ্যাপল (Apple) সিইও টিম কুক

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: সমকামীদের অধিকার নিয়ে আরও এবার মুখ খুললেন টিম কুক। তৃতীয় লিঙ্গ বা সমকামীদের প্রতি সামাজিক বৈষম্য নিয়ে সর্বদাই সরব অ্যাপল (Apple) সিইও (Apple CEO)। শুক্রবার ফ্লোরিডায় একটি বিতর্কিত শিক্ষা বিল(US Law) নিয়ে চলা সামাজিক বিতর্কে এবার নিজের বক্তব্য প্রকাশ্যে আনলেন টিম কুক(Tim Cook)। এলজিবিটিকিউ সম্প্রদায়ভুক্ত যুবক-যুবতীর স্বাধীন আচরণকে ব্যাহত করতেই এই বিল আনা হয়েছে বলে বিরোধীদের মত।

প্রাচ্যে এখনও যৌনতা বা লিঙ্গ বৈষম্য, সমকামিতা নিয়ে ছুতমার্গ থাকলেও, এসব ক্ষেত্রে পাশ্চাত্য দুনিয়ার উদারমনস্কতা অনুকরণীয়। তবে ফ্লোরিডার এই বিলও কিন্তু বুঝিয়ে দিল, খোলামেলা চিন্তাভাবনার বিপক্ষে এখনও আমেরিকার মতো দেশেও প্রাচীনপন্থীরা রয়ে গেছেন। অ্যাপল (Apple) সিইও-র সরব হওয়াই তার উদাহরণ।

বিতর্কিত ফ্লোরিডা বিলের বিরুদ্ধে নিজের মতামত তুলে ধরতে শুক্রবার এক ট্যুইট বার্তা দিলেন টিম কুক। অ্যাপল(Apple) সিইও ট্যুইটারে লিখলেন, ‘এলজিবিটিকিউ+ সম্প্রদায়ের একজন গর্বিত সদস্য হিসাবে, আমি সারা দেশে এধরনের আইন প্রণয়ন করা নিয়ে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। বিশেষ করে যেগুলি আমাদের সংবেদনশীল এক গোষ্ঠীর ছেলেমেয়েদের প্রতিহত করার লক্ষ্যে তৈরি। আমি তাদের এবং তাদের সমর্থনে থাকা সকলের পরিবার, প্রিয়জন এবং মিত্রদের পাশে আছি।’  

উল্লেখ করা যেতে পারে ৮ মার্চ, ফ্লোরিডার রিপাবলিকান-নিয়ন্ত্রিত প্রাদেশিক আইনসভা, শিক্ষাক্ষেত্রে পিতামাতার অধিকার সংক্রান্ত বিলটি(US Law) পাস করেছে। এর ফলে ক্লাসরুমে পড়ুয়াদের নিজেদের যৌন অভিমুখিতা(sexual orientation) এবং লিঙ্গ পরিচয়(gender identity) প্রকাশ করা নিয়ে আলোচনার রাস্তা নিষিদ্ধ করে। বিলের খসড়া থেকে স্পষ্ট সমকামী বা তৃতীয় লিঙ্গের ছেলেমেয়েদের একপ্রকার কণ্ঠরোধ(Gay Rights) করল এই বিল(US Law )। ফলে বিল পাসের পর থেকেই বিতর্ক দানা বাঁধতে থাকে।  

বিলটির পক্ষে সমর্থকদের যুক্তি, এটি পিতামাতার অধিকারকে শক্তিশালী করল। আপাতত বিলটি ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিসান্টিসের স্বাক্ষরের অপেক্ষায় রয়েছে। গভর্নরের সবুজ সঙ্কেতের পরই, মার্কিন মুলুকের বৃহত্তর জন সমাজকে প্রভাবিত করে, এমন আরও একটি বিতর্কিত আইন প্রণয়ন করা হবে।

বিতর্কিত বিলটির খসড়ায় লেখা আছে, ‘যৌন অভিমুখিতা বা লিঙ্গ পরিচয়ের বিষয়ে কিন্ডারগার্টেনে  স্কুল কর্মী বা কোনও তৃতীয় পক্ষ শ্রেণিকক্ষে এমন কোনও আলোচনা বা নির্দেশ দেবে না যা গ্রেড থ্রি পর্যন্ত শিশুদের জন্য অনুপযুক্ত। অথবা এমন কোনও আচরণ ঘটতে দেওয়া যাবে না, যা রাষ্ট্রের নির্ধারণ করা মাপকাঠি অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের বয়স বা মানসিক বিকাশ কোনওটির জন্যই উপযুক্ত নয়।’

উল্লেখ করা যেতে পারে, টিম কুক (Apple CEO), ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসে প্রথম নিজেকে সমকামী হিসাবে প্রকাশ্যে এনেছিলেন। সেদিন অ্যাপল(Apple) সিইও বলেছিলেন, ‘আমি সমকামী হতে পেরে গর্বিত, এবং মনে করি এই সমকামিতা আমায় ঈশ্বরের দেওয়া সেরা উপহারগুলির মধ্যে একটি।’

নিজের যৌন প্রবৃত্তি(sexual orientation)মতো একান্ত একটি ব্যক্তিগত বিষয় প্রকাশ করার ক্ষেত্রে অ্যাপল(Apple) কর্তার টিম কুকের(Tim Cook) একটি কারণও উল্লেখ করেছেন। তিনি জানতে পারেন সমকামী বা তৃতীয় লিঙ্গের শিশুরা ঠিক এই কারণে প্রতিনিয়ত প্রবল হয়রানি এবং নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। সেই মানসিক অত্যাচার কখনও কখনও এমন পর্যায়ে চলে যাচ্ছে যে তারা আত্মহত্যার কথাও ভাবছে। এই সব শোনার পরই তিনি তার যৌন প্রবৃত্তি সম্পর্কে গোপনীয়তার আগল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

টিম কুকের মতোই ডিজনি প্রধান বব চেপেকও ফ্লোরিডা আইনটির বিরোধিতাকারী সেলেব্রিটিদের তালিকায় যোগ দিয়েছেন। সমালোচকরা উপহাস করে এই বিলটিকে ‘সমকামী বলবেন না’  বিল হিসাবে উল্লেখ করছেন।

বিলের প্রণয়নকারী রিপাবলিকানদের অবশ্য যুক্তি, যে এটি যৌনতা এবং লিঙ্গ পরিচয় নিয়ে আলোচনা যাতে ক্লাসরুমে আলোচনা না হয়, সেই উদ্দেশ্যেই এই আইনের ভাবনা। তাঁরা মনে করছেন অল্পবয়সী পড়ুয়াদের মধ্যে এ ধরনের আলোচনার জন্য স্কুলের পরিবেশ একেবারেই উপযুক্ত নয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এলজিবিটিকিউ+ সম্প্রদায়ের জন্য তৈরি এই বিতর্কিত ফ্লোরিডা বিলের তীব্র বিরোধিতা করেছেন। তাঁর প্রশাসন সবসময়যে যাদের অধিকারকে(Gay Rights) মর্যাদা জানিয়ে এসেছে, তাদের জন্য তীব্র অসম্মানজনক বিলের প্রকাশ্য সমালোচনা করেছেন বাইডেন।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন ট্যুইট করেছেন,‘আমি চাই এলজিবিটিকিউ+ সম্প্রদায়ের প্রত্যেকটি সদস্য – বিশেষ করে শিশুরা, যাদের জীবনে এই বিদ্বেষমূলক বিল সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলবে, তারা সকলেই জানুক যে, আপনারা যে যেমন, ঠিক তেমনভাবেই আমাদের কাছে গ্রহণীয় এবং ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য। আমি আপনাদের পিছনে আছি। আমার প্রশাসন আপনাদের প্রাপ্য নিরাপত্তা এবং সুরক্ষার(Gay Rights)জন্য লড়াই চালিয়ে যাবে।  

অপর একটি বিবৃতিতে, মার্কিন শিক্ষা মন্ত্রী মিগুয়েল কার্ডোনা, ফ্লোরিডার আইন প্রণেতাদের তীব্র কটাক্ষ করেছেন। তাঁর কথায়, ‘এমন একটি বিদ্বেষমূলক বিলে ফ্লোরিডার আইনসভার সদস্যরা অগ্রাধিকার দিয়েছেন, যা এমন এক শ্রেণির উপর সবচেয়ে বেশি আঘাত আনবে, যাদের সামাজিক সমর্থন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। ’

Leave a Reply

Your email address will not be published.