Bengali Cinema ‘X=Prem’-এর হাত ধরে ‘ভালবাসার মরশুম’ ছুঁল শহর

Bengali Cinema ‘X=Prem’-এর হাত ধরে ‘ভালবাসার মরশুম’ ছুঁল শহর

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: জীবনের ক্যালকুলাস সত্যিই কি মেলে এত সহজে? কতটা পথ দিতে হবে পাড়ি? ‘ভালোবাসার মরশুম’ আরও একবার নতুন করে আবিষ্কার করতে চলেছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় (Srijit Mukherjee)।

পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরবর্তী ছবি (Bengali Cinema) ‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem)। সম্প্রতি শহরের বুকে এক বিলাসবহুল রেস্তোরাঁয় ছিল সেই আসন্ন ছবিরই মিউজিক লঞ্চ অনুষ্ঠান (Music Launch)। ঝলমলে এই সন্ধ্যায় উপস্থিত ছিলেন ছবির কলাকুশলীরা অর্থাৎ অর্জুন চক্রবর্তী, অনিন্দ্য সেনগুপ্ত, মধুরিমা বসাক এবং শ্রুতি দাস। মিউজিক টিমের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন নবাগত সুরকার সানাই এবং প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী সাহানা বাজপেয়ী (Sahana Bajpaie) এবং পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ‘এক্স=প্রেম’ ছবিটি (Bengali Cinema) আদতে রোম্যান্টিসিজম মাখানো এক সুরের যাত্রাপথ, যেখানে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে চারটি ভিন্ন প্রকৃতির মানুষ। মিল কেবলমাত্র একটাই, তারা প্রত্যেকেই ‘ভালোবাসা’ নামক একই সুতোয় বাঁধা। ২০২২ সালে শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস (এসভিএফ) প্রযোজনা সংস্থার ব্যানারে যে ক’টি ছবি আসতে চলেছে, তাদের মধ্যে এই গল্পে রয়েছে ভিন্নস্বাদের ছোঁয়া। প্রেম হলেও চিরাচরিত নয় এই গল্প। কলেজ জীবনের সোনালি সময়ে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে আগামী মাসে, অর্থাৎ ১৩ মে মুক্তি পাচ্ছে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem)।

ছবিতে (Bengali Cinema) রয়েছেন অর্জুন চক্রবর্তী, মধুরিমা বসাক। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে এটা দুজনেরই প্রথম কাজ। তাঁদের সঙ্গেই অভিনয় করেছেন আরও দুই নতুন মুখ অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং শ্রুতি দাস। ছবির গল্পে এবং বহমানতায় গানের (Bengali Music) এক বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। ‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem) -এর মিউজিক অ্যালবামে থাকছে ছ’ ছ’টি অসাধারণ গান। উল্লেখ্য, প্রত্যেকটি গানেই সুর বেঁধেছেন নবাগত সুরকার, সানাই। গানের কণ্ঠে শোনা যাবে বর্তমান প্রজন্মের মনের ভীষণ কাছের কিছু শিল্পীদের, রয়েছেন শ্রেয়া ঘোষাল, অরিজিৎ সিং, সাহানা বাজপেয়ী, স্যমন্তক সিনহা (Samantak Sinha) প্রমুখ। গানের কথা লিখেছেন ধ্রুবজ্যোতি চক্রবর্তী, বারিষ এবং খোদ পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ছবিতে একটি গান রয়েছে ‘রাইকিশোরী’, সেটির জন্যই কলম ধরেছেন পরিচালক। প্রসঙ্গত, এই ছবির মর্মে বহুদিন বাদে আবারও গীতিকার হিসাবে সৃজিতকে শুনতে পাবেন শ্রোতারা।

‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem) -এর মিউজিক লঞ্চ ঘিরে আবেগে ভাসলেন পরিচালক। তাঁর কথায়, ‘আমি যখনই কোনও ছবি তৈরি করি, প্রতিবারই চেষ্টা করি ভিন্ন কিছু করার এবং নতুনত্ব বজায় রাখার। আমার সবসময় লক্ষ্য এটাই থাকে যে, প্রতিটা নতুন ছবির (Bengali Cinema) সঙ্গে দর্শক যেন নতুনত্ব খুঁজে পান। এবারে আমি একদম নতুন একটা জঁর তুলে ধরতে চেয়েছি যেখানে একাধারে বিজ্ঞান এবং ভালোবাসার ইনফিউশন কাজ করবে, সেই ভাবেই তৈরি হয়েছে ‘এক্স=প্রেম’। আমি এটা বিশ্বাস করি যে, প্রেম এবং রোম্যান্সের ক্ষেত্রে গান, সুর ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ একটা ভূমিকা পালন করে। আমি নিজে, ব্যক্তিগতভাবে ছবির গান নিয়ে ভীষণ সন্তুষ্ট এবং এই ছ’টা গানের অসাধারণ সুন্দর সুরের নেপথ্যের কৃতিত্বই আমাদের সুরকার সানাইয়ের।

মিউজিক লঞ্চ নিয়ে যথেষ্টই উচ্ছ্বসিত গায়িকা শ্রেয়া ঘোষালও। ‘আমি খুবই উত্তেজিত এই ছবির মিউজিক লঞ্চ নিয়ে। নবাগত সুরকার হিসাবে সানাইয়ের কাজ ভীষণই চমকপ্রদ এবং রীতিমতো মন ভালো করে মনে রেখে দেওয়ার মতো। ছবিতে (Bengali Cinema) আমি একটা গান গেয়েছি, ‘ভালোবাসার মরশুম’ এবং একই গানের পুরুষ কণ্ঠটি অরিজিৎ সিং-এর। আমি এটা নিশ্চিত করে বলতেই পারি, গানটির মনকাড়া সুর দর্শকের মনের কাছাকাছি থাকবে। পরিশেষে বলি, বেশ কিছু বছর আমার সৃজিতের সঙ্গে কোনও কাজ করা হয়ে ওঠেনি। তাই মাঝে কিছু বছরের বিরতি থাকলেও ‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem) ছবির উপলক্ষে আবারও একসঙ্গে কাজ করে আমি খুবই খুশি। এই ছবির ধরন একদম অনন্য এবং চলচ্চিত্রায়ণের বিশেষত্ব হিসাবে সাদা-কালোর টোন ব্যবহার করা হয়েছে, এই বিষয়টার জন্য আমি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি’, জানালেন শ্রেয়া।

ইতিমধ্যেই মুক্তি পেয়েছে এসভিএফ প্রযোজিত ছবি (Bengali Cinema) ‘এক্স=প্রেম’ -এর গান ‘ভালোবাসার মরশুম’। বারিষের লেখনীতে সানাইয়ের সুরের মিশেল আর শ্রেয়ার কণ্ঠ এক মুহূর্তে পৌঁছে দিতে পারে অন্য এক জগতে। শুধু তাই না, একই গানে অরিজিতের কণ্ঠ সৃজিতের এই নতুন ছবির আরেক উপহার। গানের দৃশ্যায়ণ জুড়ে সাদা-কালোর নরমে প্রেমে ডুবে থাকা দুটো মানুষের চলার ছায়াপথ।

ভালোবাসা মানুষের পরম আশ্রয়ের ঠিকানা। বারবার সেইখানেই ফিরে আসার গল্প চিরন্তন। একটা ডাকনাম আর পাশে থাকার আশ্বাস, সঙ্গে চলার বিশ্বাস। যেখানে সময়ের ঘুরে যাওয়ার অপেক্ষায় থাকে ‘মনপলাশ’, নতুন করে পাপড়ি মেলবে বলে। গণিতের সেই চিরাচরিত অজানা সমীকরণের নতুন এক সমাধানের খোঁজেই হয়তো চলা যায় আরও অনেকটা পথ। সবমিলিয়ে, পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের এই নতুন ভাবনায় মুড়ে ‘এক্স=প্রেম’ (X=Prem) -এর গল্প বলার আঙ্গিক মানুষের মনের আরও কাছাকাছি পৌঁছে যাবে সহজে, তা বলাই বাহুল্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.