আবারও পরিত্রাতা সোনু সুদ (Sonu Sood), ইউক্রেনে আটকে পড়া পড়ুয়াদের দেশে ফেরাতে এগিয়ে এলেন সাহায্যে

আবারও পরিত্রাতা সোনু সুদ (Sonu Sood), ইউক্রেনে আটকে পড়া পড়ুয়াদের দেশে ফেরাতে এগিয়ে এলেন সাহায্যে

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: গত দু’দিন ধরে ইউক্রেনের ওপর রাশিয়ার আক্রমণ (Russia-Ukraine War) নিয়ে তোলপাড় বিশ্ব রাজনীতি। ইউক্রেনে ঢুকে একের পর এক অংশ দখল করতে শুরু করেছে রাশিয়া। সারা বিশ্ব জুড়ে তৈরি হয়েছে এক যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি। যুদ্ধবিধ্বস্ত কিয়েভ থেকে দেশে ফেরার উদ্যোগ করছেন সকলেই। এমতাবস্থায়, বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয় পড়ুয়াদের (Indian Students) দেশে ফেরানোর উদ্যোগ নিলেন বলিউডের বিখ্যাত চলচ্চিত্র তারকা সোনু সুদ (Sonu Sood)।

দেশজুড়ে যখন কোভিড অতিমারি পরিস্থিতি চলছিল, সেইসময় সোনু সুদের (Sonu Sood) মানবিক রূপ দেখেছে গোটা ভারতবর্ষ। করোনাকালে তিনি হয়ে উঠেছিলেন আর্তের ‘মসিহা’। লকডাউনের সময় অভুক্ত মানুষদের মুখে দু’বেলা দু’মুঠো খাবার তুলে দেওয়ার মহান দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন তিনি। এবার করোনা পরবর্তী সময়ে আরও একবার অসহায় ভারতীয়দের ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন তিনি। ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় ছাত্র ছাত্রীদের ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছেন সোনু সুদ (Sonu Sood)। তিনি জানিয়েছেন, ব্যক্তিগতভাবে তিনি এবং তাঁর গোটা টিম পুরোদস্তুর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, যাতে বিদেশে আটকে থাকা পড়ুয়া (Ukraine to study) সহ সব ভারতীয়রা বাড়ি ফিরতে পারেন।

রাশিয়া ইউক্রেন হামলা শুরু হওয়ার পর থেকেই আতঙ্কিত হয়ে রয়েছেন ভারত থেকে ইউক্রেনে যাওয়া নাগরিকরা। কাজের সূত্রে বা পড়াশোনার জন্য যাঁরা বিদেশে পাড়ি দিয়েছেন, হঠাৎ করে শুরু হওয়া এই যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক ভাবেই আশঙ্কায় রয়েছেন তাঁরা। চারিদিক থেকে নানা রকম বিভ্রান্তিকর খবরও ছড়িয়ে পড়ছে। কখনও কখনও তার সত্যতা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। এরই মধ্যে ১ মার্চ খবর পাওয়া যায়, একজন ভারতীয় ডাক্তারি পড়ুয়ার খারকিভে মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ার বোমার আঘাতে। এমন খবর প্রতিনিয়তই আসতে থাকছে। এই খবরে স্বভাবতই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন পড়ুয়াদের পরিবার পরিজনরা।

এই সঙ্কটকালে ত্রাতার মতো এগিয়ে এসেছেন সোনু সুদ (Sonu Sood)। কারণ বলিউডের অন্য অভিনেতাদের থেকে তিনি যে একটু অন্য ধারার। বলিউডের অনেককেই কোভিড মোকাবিলায় অর্থ সাহায্য করতে দেখা গিয়েছিল। কিন্তু নিজে দায়িত্ব নিয়ে এই ভাবে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো, তাঁদের অন্ন সংস্থানের ব্যবস্থা করা, পরিযায়ী শ্রমিকদের দেশে ফিরিয়ে আনা, এত মানবিক হতে তো আগে কাউকে দেখা যায়নি। এইবারও তার অন্যথা হল না। ভারত সরকারের ‘অপারেশন গঙ্গা’ মিশনের মাধ্যমে ৬৩০০ ভারতীয়কে দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা করেছে মোদী সরকার। এবার সেই কাজে পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন সোনু সুদ এবং তাঁর টিম। তাঁরা ভারতীয় ছাত্রদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করেন। এই কাজে তাঁরা সাহায্য নিয়েছেন ইউক্রেনের প্রতিবেশী দেশ পোল্যান্ড ও রোমানিয়ার। সেখানকার ভারতীয় দূতাবাসের সহযোগিতায় প্রায় ৩০০ পড়ুয়াকে দেশে ফেরানোর কাজ সম্পূর্ণ করেছেন তাঁরা।

ইউক্রেনে আটকে পড়া পড়ুয়াদের অনেকেই সোনুর সাহায্যে সুরক্ষিত ভাবে বাড়ি ফেরার পর তাঁর সংস্থাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। পড়ুয়ারা ভিডিওর মাধ্যমে সোনুকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তাঁদের সাহায্য করার জন্য। সোনু নিজেও সেই ভিডিওগুলি নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করেছেন। ইতিমধ্যেই সেই সব ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলে দিয়েছে। এছাড়াও পড়ুয়ারা দেশে ফেরার পর সোনু সুদ (Sonu Sood) ট্যুইটে লেখেন, ‘ইউক্রেনে আমাদের পড়ুয়ারা খুবই কষ্টে রয়েছে। তাদের দেশে ফেরানোই ছিল সবচেয়ে কঠিন কাজ। আমি এই কঠিন কাজটি করতে সমর্থ হয়েছি। পাশে থাকার জন্য ভারত সরকারকে ধন্যবাদ। জয় হিন্দ’।

প্রসঙ্গত, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ও কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করকে একটি চিঠি লিখেছিলেন সোনু সুদ। ওই চিঠিতে তিনি বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয় শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথা বলেছিলেন এবং প্রয়োজনে বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে তাদের ফিরে আসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার অনুরোধ করেছিলেন বিজয়ন ও জয়শঙ্করকে।

ইউক্রেনে আটক পড়ুয়াদের ঘরে ফেরানোর এই উদ্যোগকে সোনু নিজেও এখনও পর্যন্ত সবথেকে কঠিন কাজ বলে উল্লেখ করেছেন। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, ইউক্রেনে আমাদের পড়ুয়াদের খুবই খারাপ সময় এবং সম্ভবত আমার সবচেয়ে কঠিন কাজ এটি। সৌভাগ্যবশত আমরা ভারতীয় পড়ুয়াদের সুরক্ষিত ভাবে ইউক্রেনের সীমান্ত পার করাতে পেরেছি’। পাশাপাশি তিনি বিদেশমন্ত্রক ও পোল্যান্ড সরকারকে প্রতি মুহূর্তে সাহায্যের ও দায়িত্ব পালনের জন্য ধন্যবাদও জানান।

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনে রুশ হামলার পর থেকেই সেখানে আটক ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে সচেষ্ট কেন্দ্র। আটকে থাকা ভারতীয়দের অধিকাংশই ডাক্তারির পড়ুয়া। তাঁদের দ্রুত দেশে ফেরাতে ইউক্রেন সংলগ্ন রোমানিয়া, স্লোভাকিয়ার মতো একাধিক দেশ থেকে বিমান ছাড়া হচ্ছে। ইতিমধ্যেই প্রায় ৮০ শতাংশ পড়ুয়া ইউক্রেন ছেড়েছেন। তাঁদের একটা বড় অংশকেই দেশে ফেরানো হয়েছে। শুক্রবারই তিনটি বিমানে ছশোর বেশি পড়ুয়া ফিরে এসেছে দেশে। বাকিদেরও দ্রুত ফেরানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে

এর আগেও করোনার সময় পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর দায়িত্ব নিয়েছিলেন সোনু (Sonu Sood)। নিজের কথা না ভেবে সাধারণ মানুষের স্বার্থে এগিয়ে এসেছিলেন অভিনেতা। তিনিই হয়ে উঠেছিলেন একমাত্র রক্ষাকারী। বেশির ভাগ অভিনেতা যেখানে বিভিন্ন ত্রাণে টাকা দিয়ে দায়িত্ব সেরে ছিলেন, সেখানে তিনি নিজে স্বেচ্ছাসেবক রূপে বিগত দুবছর ধরে ময়দানে নেমে কাজ করেন। তাঁর এই উৎসাহ দেখে সমালোচকরা মন্তব্য করেছিলেন রাজনীতিতে আসার জন্যে তিনি এমনটা করছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেরকম কোনও আভাস পাওয়া যায়নি। এবার তিনি যেভাবে ইউক্রেনে আটকে থাকা পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ালেন, তারপর সকলে তাঁকে ‘পরিত্রাতা’ রূপেই চিহ্নিত করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.