এমএলএ হস্টেলে ‘তালাবন্ধ’ বিজেপি বিধায়করা, ‘ঘেরাও’ শুভেন্দুর বাড়ি, নির্বাচন বাতিলের দাবিতে রাজভবনে বিজেপি

Home কলকাতা এমএলএ হস্টেলে ‘তালাবন্ধ’ বিজেপি বিধায়করা, ‘ঘেরাও’ শুভেন্দুর বাড়ি, নির্বাচন বাতিলের দাবিতে রাজভবনে বিজেপি
এমএলএ হস্টেলে ‘তালাবন্ধ’ বিজেপি বিধায়করা, ‘ঘেরাও’ শুভেন্দুর বাড়ি, নির্বাচন বাতিলের দাবিতে রাজভবনে বিজেপি

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: কলকাতা পুর নির্বাচনে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটদানের হার ছিল ৬৫.৪০ শতাংশ। জানিয়ে দিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কিন্তু এটা ভোট হয়নি, ভোটের নামে প্রহসন হয়েছে বলে দাবি বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের।অতএব কলকাতার পুরভোটে পুনর্নির্বাচনের দাবি তুলল বিজেপি। এই দাবি নিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হতে চলেছে গেরুয়া শিবির।একই দাবিতে রাজ্যপালের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। রবিবার  সন্ধেয় বিজেপির প্রতিনিধি দল রাজভবনে আসেন। ‘ভোটের নামে প্রহসন হয়েছে। বাংলায় ন্যূনতম গণতন্ত্র নেই। নির্বাচন কমিশনের কাছেও যাব।’ রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে দেখা করে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বললেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন বিরোধী শিবিরের হাওয়া তেতে ওঠে কলকাতায় বিধায়ক হস্টেলের গেটে তালা দিয়ে দেওয়ার অভিযোগকে ঘিরে। রবিবার কলকাতায় ভোটগ্রহণ ঘিরে কোনও অভিযোগ উঠলেই দলের বিধায়করা রাস্তায় নামবেন বলে আগে থেকেই হুমকি দিয়ে রেখেছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কলকাতার বাইরে ভোটারদের শহরে ঢোকায় বিধিনিষেধ থাকলেও বিধায়কদের হস্টেলে থাকায় কোনও বাধা ছিল না। সেই মতো বিজেপি-র আট বিধায়ক কিড স্ট্রিটের হোস্টেলে ছিলেন। বিকেল সাড়ে ৩টে নাগাদ তাঁরা হস্টেল থেকে বেরোতে গেলে দেখেন মূল গেটে তালা ঝোলানো রয়েছে। এর পরে আট বিধায়ক হস্টেল চত্বরের রাস্তায় বসেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

বিজেপি-র অভিযোগ, বিরোধী বিধায়কদের আটকে রাখার জন্যই হস্টেলের গেটে তৃণমূল তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। তবে প্রশাসনের যুক্তি, বিধায়কদের নিরাপত্তার কারণেই এই ব্যবস্থা। ভোটের দিনে কলকাতার বাইরের বিধায়করা রাস্তায় নামলে অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেটা নিশ্চিত করতেই গেটে তালা দেওয়া হয়েছে। তবে কারা তালা ঝুলিয়ে দিয়ে গেল, প্রশাসনের তরফে তা খোলসা করা হয়নি। কলকাতায় দলের রাজ্য দফতর থেকেও মিছিল বের করার পরিকল্পনা ছিল বিজেপি-র। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা করতে পারেনি গেরুয়া শিবির। তবে বিধায়করা হস্টেল থেকে বেরিয়া রাজ্য নির্বাচন কমিশনে বিক্ষোভ দেখাতে যাবেন বলে পরিকল্পনা ছিল বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাও আটকে যায়।

এছাড়াও ভোটগ্রহণ চলাকালীনই সল্টলেকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বাড়ি ঘিরে ফেলে বিশাল পুলিস বাহিনী। তবে কী কারণে পুলিসের এ হেন পদক্ষেপ, তা স্পষ্ট করা হয়নি।

রবিবার সল্টলেকের বাড়িতে ১৬ জন বিধায়ককে নিয়ে একটি বৈঠকে বসেছিলেন শুভেন্দু। বিকেলে ওই বাড়ির বাইরেই বিশাল পুলিস বাহিনী মোতায়েন থাকতে দেখা যায়। বিধাননগর কমিশনারেটের ডিসি (হেড কোয়ার্টার্স)-এর নেতৃত্বে পুলিসকর্মীরা বাড়ি ঘিরে রাখেন।

এই ঘটনায় প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ। ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ অর্জুনের দাবি, ‘কলকাতায় ভোটের নামে প্রহসন হচ্ছে। কেন শুভেন্দুর বাড়ি ঘিরে ফেলা হল?’ বিজেপি বিধায়কদের শুভেন্দুর বাড়ি থেকে বেরোতে না দেওয়ার অভিযোগও ওঠে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গে বচসা শুরু হয় বিধাননগর পুলিসের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.