কম্বল নিতে হুড়োহুড়ি! বর্ধমানে তৃণমূলের কর্মসূচিতে শিকেয় করোনা বিধি

Home রাজ্য কম্বল নিতে হুড়োহুড়ি! বর্ধমানে তৃণমূলের কর্মসূচিতে শিকেয় করোনা বিধি
কম্বল নিতে হুড়োহুড়ি! বর্ধমানে তৃণমূলের কর্মসূচিতে শিকেয় করোনা বিধি

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: রাজ্যে মারাত্মক ছোঁয়াচে করোনা ভাইরাস ওমিক্রনের দাপট।করোনার তৃতীয় ঢেউযের উদ্বেগ ও আশঙ্কার মুখে দাঁড়িয়েও মানুষের বেপরোয়া ছবি ধরা পড়ল বর্ধমান শহরের এক অনুষ্ঠানে। তৃণমূল কংগ্রেসের কম্বল বিতরণ কর্মসূচিকে ঘিরেই শিকেয় উঠল করোনা বিধিনিষেধ।

বর্ধমান শহরের প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত কার্জন গেট। শাসকদলের অনুষ্ঠান উপলক্ষে কার্যত সরগরম ছিল গোটা এলাকা। করোনা আবহে সেখানে জড়ো হয়েছিলেন প্রায় হাজার পাঁচেক মানুষ।  দলের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে কার্জন গেটে একটি অনুষ্ঠানে আয়োজন করেছিলেন বর্ধমান দক্ষিণের তৃণমূল বিধায়ক খোকন দাস। ওই অনুষ্ঠানে হজির ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, তৃণমূলের জেলা সভাপতি, কাটোয়া বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়-সহ আরও অনেকেই।সেই অনুষ্ঠান থেকেই কম্বল বিলি করা হয়।
তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপনের অঙ্গ হিসেবেই বর্ধমান শহরে শাসকদলের তরফে একগুচ্ছ সামাজিক কর্মসূচি নেওয়া হয়। প্রথমে ৪ অ্যাম্বুল্যান্স ও ২ শববাহী গাড়ির উদ্বোধন করা হয়। এরপর যখন মাইকে কম্বল বিলির কথা ঘোষণা করা হয়, তখনই ঘটে বিপত্তি।

কে আগে কম্বল নেবে? টোকেন হাতে দলে দলে আসতে থাকলেন স্থানীয় মানুষজন।মঞ্চের সামনে পৌঁছানোর জন্য বেসামাল ভিড়ের চাপে অসুস্থ হয়ে পড়লেন বেশ কয়েকজন।উদ্যোক্তাদের বারবার অনুরোধ সত্বেও, কেউই তাতে কান দেননি।কম্বল নেওয়ার জন্য রীতিমতো হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। শুধু তাই নয়,  উপস্থিত অনেকের মুখেই মাস্কও ছিল না বলে অভিযোগ। এতটাই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয় যে, ঘটনাস্থলেই জ্ঞান হারান এক মহিলা। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে। অসুস্থ হয়ে পড়েন আরও বেশ কয়েকজন।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে।করোনা পরিস্থিতিতে তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে জমায়েতের অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। বিধায়ক খোকন দাসের অবশ্য দাবি, কম্বলের সঙ্গে চার হাজার মাস্কও বিলি করা হয়েছে। অধিকাংশই মাস্ক পরেছিল। তবে যে ভিড় ও হুড়োহুড়ি হয়েছিল, তা মেনে নিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.