রেলকে উপহার নির্মলার, ৪০০ নতুন ট্রেন পেল দেশ

Home দেশের মাটি রেলকে উপহার নির্মলার, ৪০০ নতুন ট্রেন পেল দেশ
রেলকে উপহার নির্মলার, ৪০০ নতুন ট্রেন পেল দেশ

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: ২০২২-২৩ অর্থবর্ষের বাজেটে একাধিক বড় ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। ৪০০টি নতুন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’ ট্রেনের ঘোষণা করলেন নির্মলা সীতারমন। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী গতিশক্তি মাস্টার প্ল্যানের আওতায় ১০০টি কার্গো টার্মিনাল নির্মাণের ঘোষণাও করলেন তিনি।
করোনা অতিমারীর জেরে মারাত্মক ধাক্কা খেয়েছে রেল পরিবহণ। দেশে পরিবহণের অন্যতম এই মাধ্যমকে চাঙা করতে কোনও দিশা থাকবে, সেরকমই অনুমান ছিল। সেই লক্ষ্যেই আজ অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করলেন, ২০০০ কিলোমিটার রেল নেটওয়ার্ককে আনা হবে বিশ্বমানের দেশীয় প্রযুক্তি KAWACH-এর আওতায়।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০২২-২৩ সালে নিরাপত্তা ও সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ২ হাজার কিলোমিটার রেল নেটওয়ার্ককে দেশীয় বিশ্বমানের প্রযুক্তি KAWACH-এর আওতায় আনা হবে।
এছাড়া ৩ বছরে ৪০০ নতুন বন্দে ভারত ট্রেন চালু হবে। ১০০ গতি শক্তি কার্গো টার্মিনাল তৈরি হবে। বাজেটে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতামন। ২০২২-২৩ সালে জাতীয় সড়কের নেটওয়ার্ক ২৫ হাজার কিলোমিটার প্রসারিত করা হবে বলেও জানান তিনি।
মঙ্গলবার পেশ করা প্রায় দেড় ঘণ্টার বাজেটে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানান, আগামী তিন বছরের মধ্যে দেশে ৪০০টি নতুন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’ ট্রেন এবং ১০০টি কার্গো টার্মিনাল হবে। ৭৫ হাজার কিলোমিটার হাইওয়ে, ৪টি জায়গায় লজিস্টিক পার্ক নির্মাণের ঘোষণাও করেন তিনি। এছাড়া নির্মলা সীতারমন আরও জানান, ন্যাশনাল রোপওয়ে প্রোগ্রামের আওতায় পাহাড়ি অঞ্চলে ৬০ কিলোমিটার রোপওয়ে চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে। ‘One Station One Product’ পলিসি লাগু করবে কেন্দ্রীয় সরকার।
কেন্দ্রীয় বাজেটে ভারতীয় রেলকে বিপুল উপহার দিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন 400 টি নতুন বন্দে ভারত ট্রেন উপহার নির্মলার। পাশাপাশি জোর দেওয়া হবে স্টেশন উন্নতিকরণের কাজে। রেলকবচের অধীনে যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য ও নিরাপত্তায় জোর দেওয়া হবে। পাশাপাশি রেলে পিপিপি মডেলে কাজ করা হবে।
বিগত বছর ভারতীয় রেলের জন্য মোট বরাদ্দের পরিমাণ ছিল প্রায় ১,১০,০৫৫ কোটি টাকা। এই বছর জল্পনা ছিল প্রায় ১০-১৫% বরাদ্দ বাড়তে পারে। মোট অ্যামাউন্ট প্রায় ২.৫ লাখ কোটি টাকা হতে পারে। তবে এই টাকা কত হতে পারে তা নিয়ে কিছু জানাননি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। খুব শীঘ্রই হয়ত এই বিষয়ে কথা বলবেন অর্থমন্ত্রী।
কী কী নতুন পরিষেবা পাওয়া যেতে পারে রেলে? এই প্রশ্ন ছিল। জল্পনা ছিল, নতুন ১0টি ট্রেন পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু সেই জায়গায় ৪00টি ট্রেন উপহার দিলেন নির্মলা সীতারমন। পাশাপাশি, কথা চলছিল বুলেট ট্রেন নিয়ে। দিল্লি-বারাণসী বুলেট ট্রেন চলতে পারে এমন জল্পনা চলছে। বিষয়টি নিয়ে এখনও কিছু জানাননি অর্থমন্ত্রী। পরে তিনি কিছু ঘোষণা করেন কিনা সেটাই দেখার।
রেল সহ প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই বেশ কিছু প্রত্যাশা ছিল। আর সব সেক্টরের মধ্য়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রেল। আগে আলাদাভাবে রেল বাজেট পেশ করা হত, তবে সেই পদ্ধতিতে বদল আনে মোদী সরকার। বর্তমানে একসঙ্গে পেশ হয় সাধারণ বাজেট ও রেল বাজেট। মনে করা হয়, রেল যাত্রীদের সুবিধা ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে একাধিক পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। নির্মলা অনেকটাই প্রত্যাশা পূরণ করেছেন।
গত এক বছরে রেলের ক্ষতি হয়েছে ২৬ হাজার ৩৩৮ কোটি টাকার। তাই বিশেষজ্ঞরা মনে করেন এবার বাজেটে সেই বিপুল ঘাটতি মেটাতে ভাড়া বাড়ানো হতে পারে রেলের। তবে সেই সম্ভাবনায় ততটা গুরুত্ব দেননি বিশেষজ্ঞরাও। নির্মলা এক্ষেত্রে অনেকটাই দরাজ। যাত্রী সুরক্ষা ও স্বাচ্ছন্দ্যে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। সীতারমন আরও বলেন যে, সমস্ত মোড অপারেটরদের মধ্যে ডেটা বিনিময় ইউনিফাইড লজিস্টিক ইন্টারফেস প্ল্যাটফর্মে আনা হবে, যা অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেসের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।
২০২২ সালের রেল বাজেটে, এই বছর দীর্ঘ দূরত্বের ভ্রমণকে আরামদায়ক করার উপর জোর দেওয়া হয়েছে এবং নির্বাচনী রাজ্য এবং মেট্রো শহরগুলির পাশাপাশি উত্তর-পূর্বকে রেল নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংযুক্ত করার উপর জোর দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ১ ফেব্রুয়ারি তাঁর চতুর্থ বাজেট পেশ করলেন, যা ২০১৭ সালে কেন্দ্রীয় বাজেটের সঙ্গে রেল বাজেটের একীভূত হওয়ার পর থেকে ষষ্ঠ যৌথ বাজেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.