‘জামতাড়ার রাস্তা হবে কঙ্গনার গালের চেয়েও মসৃণ’, কংগ্রেস বিধায়কের প্রতিশ্রুতিতে নতুন বিতর্ক

Home দেশের মাটি ‘জামতাড়ার রাস্তা হবে কঙ্গনার গালের চেয়েও মসৃণ’, কংগ্রেস বিধায়কের প্রতিশ্রুতিতে নতুন বিতর্ক
‘জামতাড়ার রাস্তা হবে কঙ্গনার গালের চেয়েও মসৃণ’, কংগ্রেস বিধায়কের প্রতিশ্রুতিতে নতুন বিতর্ক

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: নতুন এক বিতর্কে জড়ালেন ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস বিধায়ক ইরফান আনসারি। সৌজন্যের তোয়াক্কা না করে, নিজের জামতাড়া বিধানসভা এলাকায় অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের গালের চেয়েও মসৃণ রাস্তার প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি। জামতাড়ার আন্তর্জাতিক মানের ১৪টি নতুন রাস্তা নির্মাণের পরিকল্পনার কথা জানাতে গিয়েই,আনসারি দাবি করে বসেন, রাস্তাগুলি হবে কঙ্গনার গালের মতোই মসৃণ। ইতিমধ্যেই বিধায়কের ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁর এই অভব্য মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচারের জন্য, নিজেই একটি ভিডিও তৈরি করেন ইরফান আনসারি। সেখানেই তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘আমি আপনাদের কথা দিচ্ছি জামতাড়ার রাস্তাগুলি অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের গালের মতো মসৃণ হয়ে উঠবে। ১৪টি রাস্তার কাজ শীঘ্রই শুরু হবে।’

ঝাড়খণ্ডের পূর্ববর্তী রঘুবর দাস সরকারকে আক্রমণ করে, ইরফানের দাবি, এমন রাস্তা তৈরি হবে য়া বিজেপি সরকারের আমলে ছিল অকল্পনীয়। তাঁর অভিযোগ বিজেপি সরকার ঝাড়খণ্ডে শুধ লুঠপাট করেছে। আনসারির সংযোজন, ‘রাজ্যের আদিবাসী মানুষ ধুলোর মধ্যে থাকতে বাধ্য হন। যাতে নানা অসুখ তাঁদের শরীরে বাসা বাঁধে। তাই রাজ্য কংগ্রেস সরকার গঠিত হলে প্রথম নজর দেওয়া হবে উন্নয়নে। আপাতত হেমন্ত সোরেন সরকার ১৪টি নতুন রাস্তা তৈরির ছাড়পত্র দিয়েছে। কযেকদিনের মধ্যেই টেন্ডার ডেকে, নির্মাণ কাজও শুরু করে দেওয়া হবে।’

উল্লেখ করা যেতে পারে, গত সপ্তাহেই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন ওই কংগ্রেস নেতা। তিনি বলে বসেছিলেন, বেশিক্ষণ মাস্ক পরে থাকলে স্বাসকষ্ট হতে পারে। তাই সারক্ষণ মাস্ক পরে থাকার দরকার নেই। দেশে যখন হু হু করে বাড়ছে ওমিক্রনের দাপট, সেই পরিস্থিতিতে একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে এমন ভুল বার্তা দেওয়ার জন্য সমালোচনার মুখে পড়েন আনসারি। এবার ফের কঙ্গনা রানাউতের গালের সঙ্গে রাস্তার তুলনা করে নিজেকে নতুন বিতর্ক জড়ালেন।

যদিও অতীত বলছে, ঝাঁ চকচকে রাস্তার সঙ্গে নায়িকাদের জৌলুসের তুলনা টানা রাজনীতিকদের এক পুরনো অভ্যেস। কিছুদিন আগেই মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী ও শিব সেনা নেতা গুলাবরাও পাটি হেমা মালিনীর গালের সঙ্গে তাঁর বিধানসভা এলাকার রাস্তার তুলনা করেছিলেন। পরে অবশ্য তিনি এই মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছিলেন। গত নভেম্বরেই রাজস্থানের মন্ত্রী রাজেন্দ্র সিং, ক্যাটরিনা কাইফের গালের সঙ্গে রাস্তার তুলনা করেছিলেন। বহু বছর আগে লালুপ্রসাদ যাদব হেমা মালিনীর গালের সঙ্গে বিহারের রাস্তার তুলনা করে প্রথম এধরনের বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। সেই ট্র্যাডিশন এখনও চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.