‘প্রধানমন্ত্রীর দেখাদেখি আমিও মাস্ক পরি না ’, মোদিকে খোঁচা সঞ্জয় রাউতের

Home দেশের মাটি ‘প্রধানমন্ত্রীর দেখাদেখি আমিও মাস্ক পরি না ’, মোদিকে খোঁচা সঞ্জয় রাউতের
‘প্রধানমন্ত্রীর দেখাদেখি আমিও মাস্ক পরি না ’, মোদিকে খোঁচা সঞ্জয় রাউতের

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: অতিমারীর ভয়াবহ স্মৃতি ফিরিয়ে আনছে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। ব্যতিক্রম নয় ভারতও। এদেশেও ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ। এই অবস্থায় তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। মারাত্মক ছোঁয়াচে ওমিক্রনের দৌরাত্ম্য অনেকটাই আটকে দিতে পারে মাস্ক। আর সেই  মাস্ক পরা নিয়েই এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তীব্র খোঁচা দিলেন শিব সেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। মাস্ক না পরেই কেন প্রকাশ্যে চলে এসেছেন, এমন আচমকা প্রশ্ন দারুনভাবে সামলে নেন শিবসেনা নেতা। রাউত উত্তর দেন, এই বিষয়ে তিনি মোদিকে অনুসরণ করেন।

দিল্লি এবং মহারাষ্ট্রে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে  কোভিড সংক্রমণ।তার সঙ্গে ওমিক্রনের চোখ রাঙানি।এই অবস্থায় নাসিকের একটি অনুষ্ঠানে রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউতকে মাস্কহীন অবস্থায় দেখা যায়। সেই সময় সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, তিনি মাস্ক পরেননি কেন? উত্তরে রাউত বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদি দেশবাসীকে মাস্ক পরতে বলেন, কিন্তু নিজে মাস্ক পরেন না। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে মাস্ক পরেন। কিন্তু মোদি হলেন দেশনেতা, সেই কারণে আমি এই বিষয়ে মোদিকে অনুসরণ করি। আমি মাস্ক পরি না, সাধারণ মানুষও মাস্ক পরে না।’

যদিও শিবসেনা সাংসদ এদিন মেনে নেন যে ভিড় ও জমায়েতে নিজের স্বার্থেই মানুষের কোভিড বিধি মানা উচিত। রাউত আরও বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত বিধিনিষেধ জারি হয়নি বটে। আমি চাই না কোভিড সংক্রমণের ফলে দেশের অর্থনীতির আবার মুখ থুবড়ে পড়ার মতো দশা হোক।’ শিব সেনা মুখপাত্র নিজেই জানান, এনসিপি সাংসদ সুপ্রিয়া সুলে, তাঁর স্বামী এনসিপি নেতা সদানন্দ সুলে, এনসিপি নেতা প্রযক্ত তানপুরে, মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী বর্ষা গায়কোয়াড় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে সকলকেই জমায়েতের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু আশঙ্কা প্রকাশ করেছে, ওমিক্রনের সুনামিতে ভেঙে পড়তে পারে গোটা বিশ্বের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা।ভারতেও লাফিয়ে বাড়ছে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা।পাশাপাশি ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণের গ্রাফও। এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ-সহ ৮টি রাজ্যকে নতুন করে সতর্ক করেছে কেন্দ্র। তার মধ্যে রয়েছে মহারাষ্ট্রও। মহারাষ্ট্রের কোভিড টাস্ক ফোর্সের এক সদস্যের মতে, মুম্বই ও দিল্লির পরিস্থিতি দেখে বলাই যায়, বিচ্ছিন্ন ভাবে তৃতীয় ঢেউয়ের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.