‘কারণ এ রাজ্যে ২ টাকায় জীবন পাওয়া যায়’, প্রশংসায় দেবাংশু

Home কলকাতা ‘কারণ এ রাজ্যে ২ টাকায় জীবন পাওয়া যায়’, প্রশংসায় দেবাংশু
‘কারণ এ রাজ্যে ২ টাকায় জীবন পাওয়া যায়’, প্রশংসায় দেবাংশু

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: বলা যেতে পারে অসাধ্যসাধন! গরুর গলার শিরা কেটে বসানো হল ছোট্ট শিশুর গলায়। হ্যাঁ ঠিকই পড়ছেন। তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতোই একটি খবর এটি। এই খবরের স্কিনশট তুলেই রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এবং মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন দেবাংশু ভট্টাচার্য।

এনআরএসের চিকিৎসকদের অসাধ্য সাধনের কথা সকলের মুখে মুখে ঘুরছে। এই নিয়ে ফেসবুক পোস্টে দেবাংশু লিখেছেন, ‘এদের নিঃশব্দ আশীর্বাদেই মেয়েটা কখনো ২১১, কখনো ২১৫ হয়.. এদের মুখের হাসিতেই একদিন ২৫০ হবে..’ তৃতীয়বার বিপুল জনসমর্থন নিয়ে আসনে বসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজকের এই ঘটনার পর রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর এক প্রকার প্রশংসাই করেছেন তিনি। আর এই পরিকাঠামোর প্রশংসার পেছনে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসাও করেছেন তিনি।

ঘটনাটা কী জানেন? না জানলে চোখ বুলিয়ে নিন একবার- একটু হাঁটলেই বুকে ব্যথা, বুকে হাত চেপে বসে পড়ত ছোট্ট মেয়ে। চিন্তায় পরিবারের সকলেই। মুর্শিদাবাদের কান্দির তেঁতুলিয়া থেকে তয়বা খাতুনকে নিয়ে কলকাতায় আসেন তার মা। শিয়ালদহ স্টেশন থেকে একটু হেঁটেই এনআরএসের শিশু বিভাগের আউটডোর। টিকিট কেটে ভিড় ঠেলে যতক্ষণে দরজা অবধি পৌঁছলেন, ততক্ষণে নিস্তেজ হয়ে পড়েছে ছোট্ট মেয়েটি। প্রাথমিক পরীক্ষার পর কার্ডিওথোরাসিক সার্জারির জন্য পাঠানো হয় তাকে। গরুর গলার শিরা কেটে বিশেষভাবে প্রস্তুত যে শিরা তয়বার বুকে বসানো হয়েছে, তার দৈর্ঘ্য প্রায় ২০০ মিলিমিটার, ব্যাস ১৪ মিলিমিটার। এই শিরা দিয়ে রক্ত সঞ্চালন সহজ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.