মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা! নেট দুনিয়ায় শোরগোলের পর ব্লক ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ

Home দেশের মাটি মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা! নেট দুনিয়ায় শোরগোলের পর ব্লক ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ
মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা! নেট দুনিয়ায় শোরগোলের পর ব্লক ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: মুসলিম মহিলাদের অসম্মান ও হেনস্থার অভিযোগে ব্লক করা হল ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ ৷ দিল্লির এক মহিলা সাংবাদিকের অভিযোগের ভিত্তিতে তড়িঘড়ি এই পদক্ষেপ করল কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক ৷ শনিবার রাতেই ওই অ্যাপটিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়েছে বলে জানালেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব ৷

উল্লেখ করা যেতে পারে, সম্প্রতি অনুমতি ছাড়াই ছবি ব্যবহার করে ফের অ্যাপের মাধ্যমে নিলামের জন্য তালিকাভুক্ত করা হয় শত শত মুসলিম মহিলার নাম। দেশে এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে দ্বিতীয় বারের জন্য এই ধরনের ঘটনা ঘটল।

বছর খানেক আগে, মুসলিম মহিলাদের ছবি ব্যবহার করে নিলামের জন্য তালিকাভুক্ত করার অভিযোগ ওঠে একটি অ্যাপের বিরুদ্ধে। ‘সুল্লি ডিল’ নামক ওই অ্যাপ বন্ধ করে প্রশাসন। ‘সুল্লি’ শব্দটি মুসলিম মহিলাদের জন্য অত্যন্ত অবমাননাকর এবং অসম্মানজনক একটি প্রয়োগ।   নেটমাধ্যমেও বহুল প্রচলিত ছিল এই শব্দ। মুসলিম মহিলাদের অপমান এবং হয়রানি করাই অ্যাপটির উদ্দেশ্য বলে তখন জানিয়েছিল পুলি

এ বারও প্রায় একই কায়দায় মুসলিম মহিলাদের ছবি ব্যবহার করে নিলামের জন্য তালিকাভুক্ত করার অভিযোগ ওঠে ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপের বিরুদ্ধে। ট্যুইটারে এই অ্যাপ নিয়ে নিন্দার ঝড় ওঠে।

এরপর  দিল্লির মহিলা সাংবাদিক ইসমত আরা ‘বুল্লি বাই’র বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিসের সাইবার অপরাধ দমন শাখায় অভিযোগ দায়ের করেন। যেখানে তিনি অভিযোগ করেছেন, ওই অ্যাপে তাঁর বিকৃত ছবি ব্যবহার করা হয়েছে ৷ নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় এফআইআর কপি তুলে ধরে সাংবাদিক অভিযোগ করেন, ওই অ্যাপের লক্ষ্যই হল মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা ও অপমান করা ৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই পোস্টটি ভাইরালও হয় ৷ এর পর দিল্লি পুলিসের তরফে দ্রুত অ্যাপটিকে বন্ধ করার উদ্যোগ নেওয়া হয় ৷শনিবার রাতেই তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপটিকে ব্লক করা হয় ৷ এই অ্যাপটি মাইক্রোসফটের ‘গিটহাব’ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে চালানো হত৷ ইসমত আরা তাঁর অভিযোগে জানিয়েছেন,  ১ জানুয়ারি বুল্লিবাই.গিটহাব.আইও নামের ওয়েবসাইটে তাঁর একটি বিকৃত ছবি আপলোড হয়। যা তিনি জানতে পারেন, এক বন্ধুর পাঠানো স্ক্রিন শটের মাধ্যমে।ইসমত এরপরই ট্যুইট করেন, ‘মুসলিম মহিলা বলে একজনকে তাঁর নতুন বছরটা যেভাবে একরাশ বিরক্তি এবং উদ্বেগের মধ্যে গিয়ে শুরু করতে হল তা অত্যন্ত দুঃখজনক। অবশ্যই বলতে হয়, আমি প্রথম এবং একমাত্র মহিলা নই যিনি সুল্লি ডিলের নতুন ভার্সানে হেনস্থার শিকার হলেন।’

তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ করেন, বুল্লি বাই অ্যাপটিতে মুসলিম মহিলাদের অসম্মান করে প্রচুর পোস্ট করা হয়েছে ৷ তিনি লেখেন, ‘বুল্লি বাই একটি অবমাননাকর শব্দ এবং আর এই ওয়েবসাইটের বিষয়ই হল মুসলিম মহিলাদের অসম্মান করা৷ আর অবমাননাকর শব্দ বুল্লি ব্যবহার করা হয়েছে শুধুমাত্র মুসলিম মহিলাদের উদ্দেশ্য করেই৷’ এও অভিযোগ উঠেছে, ওই ওয়েবসাইটটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যাতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা এবং অপমান করাই তাদের উদ্দেশ্য ৷

এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানান, ‘গিটহাব মাইক্রোসফটের তৈরি সফটওয়্যার শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম, যা ব্যবহার করে বুল্লি বাই অ্যাপটি চালানো হত। অ্যাপ ব্যবহারকারীকে ব্লক করার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে ৷ সিইআরটি (কম্পিউটার এমার্জেন্সি রেসপন্স টিম) এবং পুলিস-প্রশাসন পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে৷’

Leave a Reply

Your email address will not be published.