মরণাপন্ন তিন দিনের শিশুর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিলেন অভিষেক

Home রাজ্য মরণাপন্ন তিন দিনের শিশুর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিলেন অভিষেক
মরণাপন্ন তিন দিনের শিশুর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিলেন অভিষেক

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: মাত্র তিনদিন বয়সের একটি সদ্যোজাত শিশু। জন্মানোর পর থেকেই হৃদযন্ত্রে মারাত্মক সমস্যা ধরা পড়ে তার। সেই শিশুর শারীরিক অসুস্থতার কথা জানতে পেরে খোদ এগিয়ে এলেন সাংসদ তথা তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে, শিশুটির অস্ত্রোপচারের সমস্ত খরচ দেবেন সাংসদ নিজেই।

প্রসঙ্গত, গত ১২ জানুয়ারি বারাসাতের নিউ সেবা সদন হাসপাতালে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন পূজা দেবনাথ নামে উত্তর ২৪ পরগণার হরিণঘাটা এলাকার এক মহিলা। জন্মের সময় থেকেই হৃদযন্ত্রে জটিল সমস্যা থাকায় চিকিৎসকরা শিশুটিকে বি সি রায় শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু সেখানে গিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। হাসপাতাল থেকে শিশুটির পরিবারকে জানানো হয়, সদ্যোজাতের যা শারীরিক অবস্থা সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র বাইপাসের ধারে বেসরকারি হাসপাতাল কিংবা এসএসকেএম হাসপাতালেই এই রোগের চিকিৎসা হতে পারে। কিন্তু বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর মতো সাধ্য পরিবারের ছিল না। এরপরই ডায়মণ্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নজরে আসে ঘটনাটি। পুরো বিষয়টি জানার পর শিশুটির চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নেন তিনি।

উল্লেখ্য, গোটা ঘটনার সঙ্গে যুক্ত আছেন টলিউডের একজন এডিটর অনির্বাণ মাইতি। উনি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ান। এক মহিলার থেকে এই শিশুটির অসুস্থতার কথা জানতে পেরে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেন। সেখান থেকেই খবর পেয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর দলের কর্মীরা। তাঁদের মানবিক চেষ্টায় প্রাণে বাঁচল সেই একরত্তি। সূত্রের খবর, সদ্যোজাতকে কলকাতার আরএন টেগোর হাসপাতালে ভরতি করার ব্যবস্থা করেছেন তিনি। সমস্ত প্রয়োজনীয় পরীক্ষার পর শিশুটিকে জরুরি বিভাগে ভরতি করা হয়েছে এবং দ্রুত তার চিকিৎসা শুরু হবে।

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের এই মানবিক আচরণে স্বাভাবিকভাবেই খুশি শিশুটির পরিবার। তাঁরা অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন মাননীয় সাংসদ ও তাঁর টিমকে। পাশাপাশি, দলীয় রাজনীতির ঊর্ধ্বে গিয়ে শিশুটিকে বাঁচানোর জন্য যে তৎপরতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দেখিয়েছেন তা

Leave a Reply

Your email address will not be published.