রাজ্যে ওমিক্রন সন্দেহভাজন আরও ৪, হিমাচল ও মধ্য প্রদেশেও হানা ওমিক্রনের

Home কলকাতা রাজ্যে ওমিক্রন সন্দেহভাজন আরও ৪, হিমাচল ও মধ্য প্রদেশেও হানা ওমিক্রনের
রাজ্যে ওমিক্রন সন্দেহভাজন আরও ৪, হিমাচল ও মধ্য প্রদেশেও হানা ওমিক্রনের

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: ওমিক্রন আক্রান্ত সন্দেহে আরও চারজনকে ভরতি করা হল কলকাতার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। এরা সকলেই বিদেশ ফেরত। রবিবারই ব্রিটেন থেকে আসা এই চারজন কোভিড পজিটিভ হয়েছেন।

স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে খবর, বিদেশ ফেরত চার যাত্রীর মধ্যে দু’জন পুরুষ। একজনের বয়স ৪৪, আরেক জনের ২৪। করোনা আক্রান্তদের মধ্যে একজন মহিলাও রয়েছেন। তাঁর বয়স ৩১ বছর। এমনকী, কোভিড আক্রান্ত হয়েছে পাঁচ বছরের এক শিশুও। কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ হওয়ায় বিমানবন্দর থেকেই তাঁদের অ্যাম্বুল্যান্সে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল পাঠানো হয়। ওই চারজন ওমিক্রন আক্রান্ত কিনা তা জানতে সোমবার জিনোম সিক্যুয়েন্সিং পরীক্ষার জন্য কল্যাণীর পরীক্ষাকেন্দ্রে নমুনা পাঠানো হবে।

এখনও পর্যন্ত ২৩ জন কোভিড আক্রান্তের লালারস জিনোম সিক্যুয়েন্সিং পরীক্ষার জন্য কল্যাণীর ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ জিনোমিক্স স্টাডিতে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ছ’জন ওমিক্রন আক্রান্ত বলে স্বাস্থ্যভবন সূত্রে খবর। সংক্রমিতদের বয়স ৬-৬৯ বছরের মধ্যে। এছাড়া কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের এক ইন্টার্নও ওমিক্রন আক্রান্ত। তবে তাঁর বিদেশযাত্রার কোনও রেকর্ড নেই। বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই তরুণ চিকিৎসকের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

এদিকে দেশের ১৮ এবং ১৯ নম্বর রাজ্য হুসেবে হিমাচল প্রদেশ এবং মধ্য প্রদেশেও ঢুকে পড়ল ওমিক্রন।হিমালয়ে করোনা আক্রান্ত ৯ জনের নমুনার জিনোম সিক্যুয়েন্সিং-এর পর, ১ জনের ওমিক্রন সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ওমিক্রন আক্রান্ত মহিলা কানাডা ফেরত। অন্যদিকে মধ্যপ্রদেশে যে আটজন ওমিক্রনের জেরে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে তিনজন আমেরিকা, দু’জন ব্রিটেন, দু’জন কানাডা এবং একজন ঘানা থেকে এসেছেন।যদিও ছ’জনের রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পর হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়ে্ছে। বাকিরা এখন উপসর্গহীন কিন্তু চিকিৎসায় রয়েছেন।

দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪২২, মোদির বুস্টার ডোজ ঘোষণাকে স্বাগত চিকিৎসকদের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৬ হাজার ৯৮৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা ৪২২ জন। তবে স্বস্তির খবর, ওমিক্রন আক্রান্তদের মধ্যে ইতিমধ্যেই ১৩০ জন সুস্থ হয়ে গিয়েছেন।

ওমিক্রনের হানা রুখতে টিকাকরণকেই অস্ত্র করছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। ইতিমধ্যেই দেশে করোনার টিকার প্রায় ১৪১ কোটি ৩৭ লক্ষ ডোজ দেওয়া হয়েছে। শনিবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছেন, আগামী ৩ জানুয়ারি থেকে দেশে ১৫-১৮ বছর বয়সিদের টিকা দেওয়া শুরু হবে। আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে টিকার বুস্টার ডোজ পাওয়া শুরু করবেন প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা, স্বাস্থ্য কর্মীরা।কোমর্বিডিটি যুক্ত ষাটোর্ধ্বরাও টিকা পাবেন ১০ জানুয়ারি থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.