দিঘায় কাঁকড়া খাওয়ার পরিণাম! বেড়াতে গিয়ে প্রাণ গেল রামপুরহাটের কিশোরীর

Home রাজ্য দিঘায় কাঁকড়া খাওয়ার পরিণাম! বেড়াতে গিয়ে প্রাণ গেল রামপুরহাটের কিশোরীর
দিঘায় কাঁকড়া খাওয়ার পরিণাম! বেড়াতে গিয়ে প্রাণ গেল রামপুরহাটের কিশোরীর

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: কাঁকড়া খেয়ে আবারও মৃত্যুর ঘটনা ঘটল দিঘায়। পূর্ব মেদিনীপুরের সৈকত শহরে এসে কাঁকড়া খেয়েছিলেন ১৮ বছরের এক কিশোরী। তার পরই শ্বাসকষ্ট শুরু হয়েছিল তাঁর। এর পর হাসপাতালে নিয়ে গিয়েও বাঁচানো যায়নি তাঁকে। এ বছরই দিঘায় ঘুরতে এসে কাঁকড়া খেয়ে মৃত্যু হয়েছিল বেহালার ২২ বছরের যুবক সৌম্যদীপ শিকদারের।

বছরের শেষের আ্নন্দ উপভোগ করতে, পরিজনদের সঙ্গে দীঘায় বেড়াতে এসেছি্লেন বীরভূমের রামপরুরহাটের হাটতলার কিশোরী ঋত্বিকা।সৈকত শহরে পৌঁছে পরিবারের সঙ্গে মেতে উঠেছিলেন আনন্দে। কিন্তু কাঁকড়া খাওয়াই হল কাল। কাঁকড়া খাওয়ার কিছুক্ষণ পরই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, অ্যালার্জির কারণেই এই ঘটনা।

জানা গিয়েছে, ওই কিশোরীর নাম ঋত্বিকা ভগৎ। বয়স বছর ১৮। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দিঘায় বেড়াতে গিয়েছিলেন । দিঘা মানেই সমুদ্র সৈকতের সি-ফুড।  দিঘায় গিয়ে সবাই সামুদ্রিক কাঁকড়ার স্বাদ নিতে চায়। অন্যথা হয়নি ঋত্বিকার ক্ষেত্রেও। আর সেই কাঁকড়া খাওয়াই কাল হল তার।

জানা গিয়েছে, কাঁকড়া খাওয়ার পরই অসুস্থ হয়ে পড়েন ঋত্বিকা। অ্যালার্জির নানা উপসর্গ দেখা দেয়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই মৃত্যু হয় তার। ঋত্বিকার প্রতিবেশী রাজীব পাল বলেছেন, ‘ঋত্বিকার বরাবরই অ্যালার্জির সমস্যা ছিল। চিকিৎসাও চলছিল। তবে দিঘায় বেড়াতে এসে হোটেলে সামান্যই কাঁকড়া খেয়েছিল। তারই খেসারত জীবন দিয়েই মেটাতে হল।’’

প্রসঙ্গত, গত ২১ নভেম্বর দীঘা বেড়াতে গিয়ে কাঁকড়া খেয়ে মৃত্যু হয়েছিল কলকাতার এক যুবকের। মৃত সৌমদীপ শিকদারের বয়স ছিল ২২ বছর। ওই যুবকও নিজের অ্যালার্জির সমস্যা ভুলে কাঁকড়া খেয়েছিলেন। কলকাতার বেহালার বাসিন্দা ওই যুবকের মৃত্যুর পর সি-ফুড নিয়ে আমজনতাকে সতর্ক করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। তা সত্ত্বেও ফের এক মাস পেরতে না পেরতে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল দিঘায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.