১৬ সেকেন্ড মাস্ক খোলার জরিমানা ২ লক্ষ ! কপাল চাপড়াচ্ছেন ব্রিটেনের ক্রিস্টোফার!

Home বিদেশ-বিভূঁই ১৬ সেকেন্ড মাস্ক খোলার জরিমানা ২ লক্ষ ! কপাল চাপড়াচ্ছেন ব্রিটেনের ক্রিস্টোফার!
১৬ সেকেন্ড মাস্ক খোলার জরিমানা ২ লক্ষ ! কপাল চাপড়াচ্ছেন ব্রিটেনের ক্রিস্টোফার!

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: আবিশ্বে কোভিড ভাইরাস এখন জীবনেরই অঙ্গ। কখনও দাপুটে, কখনও স্তিমিত। অতিমারীর শুরুর থেকে এই ভাইরাসের দৌরাত্ম্য নাস্তানাবুদ করে তুলছে। কোভিড-১৯ রুখতে কঠোর বিধিনিষেধ জারি হয় সব দেশেই। যার মধ্যে প্রথম এবং অবশ্যকর্তব্য ছিল বাড়ির বাইরে পা রাখা মাত্রই মাস্কে মুখ ঢেকে নেওয়া। আর দ্বিতীয়টি ছিল শারীরিক দূরত্ব মেনে চলা। মাঝে কিছুটা শিথিলতা এলেও ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাবে এখন মাস্ক না পড়লে সমূহ বিপদ। তবে এই কড়া বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের মূল্য যে কতটা হতে পারে, তার শিক্ষা নিতে হয় ব্রিটেনের ক্রিস্টোফারের কাছ থেকে। সামান্য সময় মুখ থেকে মাস্ক সরানোর জন্য একটু বেশিই মূল্য চোকাতে হচ্ছে তাঁকে। জরিমানা হিসেবে গুণতে হচ্ছে ২ লক্ষ টাকা।

লিভারপুল ইকো-র খবর অনুযায়ী, এটি গতবছর ফেব্রুয়ারি মাসের ঘটনা। স্থানীয় বি অ্যান্ড এম  স্টোরে কেনাকাটা সারতে ঢোকেন ক্রিস্টোফার ও’ টুল। কিন্তু বদ্ধ পরিবেশে, মুখে মাস্ক নিয়ে অসুস্থ বোধ করতে থাকেন ক্রিস্টোফার। দমবন্ধ অবস্থায় মুখ থেকে কিছুক্ষণের জন্য মাস্ক সরান তিনি। স্বাভাবিক হলে আবার পরেও ফেলেন। এরপর কেনাকাটা সেরে স্টোরের বাইরে পা রাখা মাত্রই পুলিস সামনে এসে দাঁড়ায়। স্টোরের ভিতর মাস্ক না পড়ায়, তাঁর নাম তুলে নেয় পুলিসের খাতায়। কিন্তু ক্রিস্টোফারের পাল্টা দাবি, মাস্ক পড়ে চলাফেরায় তাঁর কোনও আপত্তি বা অসুবিধা নেই। সেদিন শুধুমাত্র অসুস্থ বোধ করায়, একটু ক্ষণের জন্য মাস্ক সরিয়েছিলেন।

এর কিছুদিন পর, ক্রিমিনাল রেকর্ডস অফিস থেকে তাঁর নামে চিঠি আসে, যেখানে মাস্ক খোলার জন্য জরিমানা বাবদ ১০০ পাউন্ড জমা দিতে বলা হয়। ক্ষুব্ধ ক্রিস্টোফার পাল্টা ই-মেলে জরিমানা দিতে আপত্তি আছে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয়। ক্রিস্টোফারের দাবি, ‘১৬ সেকেন্ড মতো’ সময়ের জন্য মাস্ক খোলার শাস্তি হিসেবে ফাইন দিতে তিনি রাজি নন। এরপর অন্য পক্ষের তরফে কোনও উত্তর পাওয়া যায়নি। কিন্তু ১০মাস পর অর্থাৎ গত বছর ডিসেম্বরে, নীরবতা ভেঙে ক্রিস্টোফারের কাছে আবার একটি চিঠি পাঠানো হয়, এবার জরিমানার অঙ্ক দ্বিগুণ করে ২০০ পাউন্ড জমা দিতে বলা হয়। এরপর কিছুটা সুর নরম করেই ক্রিস্টোফার, ক্রিমিনাল রেকর্ডস অফিসকে জানিয়ে দেয়, তার পুরো মাসের মাইনে দিয়ে দিলেও জরিমানা মেটানো অসম্ভব।

এরপর কোনও আপোসের চেষ্টা না করেই, ক্রিস্টোফারের অজান্তে পুরো বিষয়টি আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন দু’লক্ষ টাকার জরিমানার সঙ্গে যোগ হল আদালতে হাজিরা। ভাগ্যের ফেরে একবছর আগের সেই দিনটার জন্য এখন কপাল চাপড়াচ্ছেন ক্রিস্টোফার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.