ব্যাটে-বলে দুরন্ত পারফরম্যান্স! সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে রঞ্জির (Ranji trophy) নকআউটে বাংলা

Home Uncategorized ব্যাটে-বলে দুরন্ত পারফরম্যান্স! সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে রঞ্জির (Ranji trophy) নকআউটে বাংলা
ব্যাটে-বলে দুরন্ত পারফরম্যান্স! সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে রঞ্জির (Ranji trophy) নকআউটে বাংলা

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক : অপ্রতিরোধ্য বাংলা। ২০২২ রনজি ট্রফি (Ranji trophy 2022) প্রতিযোগীতায় অসাধারণ ছন্দে ধরা দিচ্ছেন বাংলার ক্রিকেটাররা। লীগ পর্বের শেষ ম্যাচে চণ্ডীগড়কে হারিয়ে রঞ্জি ট্রফির (Ranji trophy) নকআউট পর্বে পৌঁছে গেল বাংলা। ব্যাটে-বলে রীতিমতো দাপট দেখিয়ে ১৫২ রানে জিতল দল।

প্রথম ইনিংসে চণ্ডীগড়ের বোলারদের নিয়ে ছিনিমিনি খেলেন বাংলার ব্যাটাররা। ওপেনার সুদীপ ঘরামি কোনও রান করে ফিরে গেলেও, চোখ ধাঁধানো ১৭২ বলে ১১৪ রানের ইনিংস উপহার দেন অভিমন্যু ঈশ্বরণ। ১২ টি বাউন্ডারি দিয়ে সাজানো ছিল তাঁর ইনিংস। অভিমন্যুকে যোগ্য সঙ্গ দেন অনুষ্টুপ মজুমদার। মাত্র ৫ রানের জন্য শতরান হাতছাড়া করেন তিনি। ১৩ টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৪৯ বলে ৯৫ রান করেন বাংলার অভিজ্ঞ ব্যাটার। একটুর জন্য সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেন সায়ন মণ্ডলও। বাংলার ১০ উইকেট পড়ে যাওয়ায় ১৪২ বলে ৯৭ রান করে আউট না হয়েও মাঠ ছাড়তে হয় সায়নকে। ৫৩ রানের ইনিংস খেলেন মনোজ তিওয়ারিও। আর তাতেই প্রতিপক্ষের সামনে ৪৩৭ রানের পাহাড় তৈরি হয়ে যায়। চণ্ডীগড়ের হয়ে ৩১.৩ ওভার বল করে ৮৭ রান দিয়ে সর্বোচ্চ ৫ ইউকেট নেন ডান হাতি বোলার জগজিৎ সিং। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই নড়বড়ে দেখচ্ছিল চণ্ডীগড়কে।চণ্ডীগড়ের হয় সর্বোচ্চ রান করেন অংকিত কৌশিক। ১১৩ বলে ১৬৩ রানের ইনিংস খেলেন অংকিত। বাংলার পেসারদের বিরুদ্ধে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক মনন ভোরা ও জসকরণ সিং। যদিও তাতে লাভ কিছুই হয় নি। মাত্র ২০৬ রানেই গুটিয়ে যায় চণ্ডীগড়ের প্রথম ইনিংস। অঙ্কিত কৌশিক ছাড়া কেউই ক্রিজে টিকতে পারেননি। নীলকান্ত দাস একাই তুলে নেন তিনটি উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য কিছুটা ভাল বল করে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে চণ্ডীগড়। টপ অর্ডারে ধস নামান শ্রেষ্ঠ নির্মোহী। আগের ইনিংসে শতরান করা অভিমন্যু মাত্র ১৪ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তবে অভিজ্ঞ অনুষ্টুপের ব্যাটে ফের বাংলার চাকা ঘোরে। গুরুত্বপুর্ন ৪৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। অভিষেক পোড়েলের ৬৩ বলে ৩৮ রান এবং শাহাবাজ আহমেদের ৪৬ বলে ৩২ রানের ইনিংসের সৌজন্যে আট উইকেটে ১৮১ রান করে ইনিংস ডিক্লেয়ার ঘোষণা করে বাংলা। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমেই আবারও ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে চণ্ডীগড়। বাংলার পেসার ঈশান পোড়েল ও মুকেশ কুমারের আগুনে পেস বোলিং-এর সামনে দিশেহারা হয়ে পরে চণ্ডীগড়। মাত্র ৫৭ রানেই ৩ ইউকেট হারায় হর্ণুল সিং-এর দল। মাঝের দিকে অধিনায়ক মনন ভোরা ও অমরিত লুবানা কিছুটা চেষ্টা করলেও তা ছিল ক্ষণস্থায়ী। ৯ নম্বরে নেমে জসকরণ সিং ৬০ রানের ইনিংস খেলেন। জসকরনের ইনিংস দর্শকদের বাহবা পেলেও বাংলাকে হারানোর পক্ষে যথেষ্ট ছিল না। ৪১৩ রানের বোঝা মাথায় নিয়ে আর লক্ষ্যে পৌঁছতে পারেননি চণ্ডীগড়। ২৬০ রানেই শেষ হয় চণ্ডীগড়ের যাবতীয় লড়াই। মনন ভোরাদের রুখে দিয়েই নকআউটে পৌঁছে গেলেন অভিমন্যুরা। ঈশান পোড়েল পান তিনটি উইকেট। নীলকান্ত দাস ও মুকেশ কুমার প্রত্যেকে দুটি করে উইকেট পান।

স্বাভাবিক ভাবেই বাংলার এমন জয়ে উচ্ছ্বসিত কোচ অরুণ লাল। তিনি বললেন, ‘দুর্দান্ত এই জয়। তবে এই ম্যাচ না জিতলেও আমরা নকআউটে পৌঁছতে পারতাম। কিন্তু ছেলেরা যে লড়াই করে জিতেছে, এটাই আনন্দের।’ চলতি রঞ্জি ট্রফির (Ranji Trophy) এলিট গ্রুপ বি-তে ছিল বাংলা। বাংলার রঞ্জি (Ranji trophy) অভিযানের শুরুটা কিন্তু মোটেই ভালো হয়নি। বরোদার বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৮৮ রানেই অলআউট হয়ে যায় বাংলা। চারিদিক থেকে সমালোচনার তীর বিদ্ধ করে ক্রিকেটারদের। তারপরেই দ্বিতীয় ইনিংসে অপ্রত্যাশিত প্রত্যাবর্তন। চতুর্থ ইনিংসে ৩৪৯ রানের লক্ষ্যমাত্রাকে তাড়া করে ৪ ইউকেটে জিতে যায় মনোজ তিওয়ারিরা। এরপর হায়দরাবাদকেও দাপট দেখিয়ে ৭২ রানে হারায় বাংলা। ৬ পয়েন্ট পেয়ে নকআউট কার্যত নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল তখনই। আর শেষ ম্যাচ জিতে গ্রুপ শীর্ষে থেকে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে নকআউটে পৌঁছে গেল বাংলা। আইপিএলের পর ফের বসবে রঞ্জি ট্রফির (Ranji trophy) আসর। সেই পর্বে নকআউটের লড়াইয়ে নামবে দলগুলি।

প্রসঙ্গত, করোনার কারণে ২০২১ সালে রঞ্জি ট্রফি (Ranji trophy 2021) অনুষ্ঠিত হয়নি। ২০২০ সালে রঞ্জি প্রতিযোগীতায় (Ranji trophy 2020) ফাইনালে ওঠে বাংলা। কিন্তু চেতেশ্বর পুজারার সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে হেরে গিয়ে রঞ্জি জয়ের (Ranji trophy) স্বপ্ন ভঙ্গ হয় তাঁদের। বাংলা শেষবার রঞ্জি ট্রফি (Ranji trophy) জেতে ১৯৯০ সালে। রঞ্জি ট্রফি বিজয়ীদের তালিকায় ( Ranji trophy winner’s list) বাংলার নাম আছে মাত্র দুবার। তাই বাংলা তৃতীয়বার রঞ্জি জয়ের লক্ষ নিয়েই নকআউট পর্বে নামবে তা বলাই বাহুল্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.