বাবা-মা তোমাদের ভালোবাসি, রুশ (Russia) আক্রমণের পর ইউক্রেনের (Ukraine) সেনার ভিডিয়ো বার্তা ভাইরাল (video viral)

Home বিদেশ-বিভূঁই বাবা-মা তোমাদের ভালোবাসি, রুশ (Russia) আক্রমণের পর ইউক্রেনের (Ukraine) সেনার ভিডিয়ো বার্তা ভাইরাল (video viral)
বাবা-মা তোমাদের ভালোবাসি, রুশ (Russia) আক্রমণের পর ইউক্রেনের (Ukraine) সেনার ভিডিয়ো বার্তা ভাইরাল (video viral)

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: রাশিয়ার আগ্রাসনের মুখ দাঁড়িয়ে আছে ইউক্রেন। বৃহস্পতিবার সকালে তিন দিক থেকে সেনা ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনকে। এখনও পর্যন্ত ইউক্রেনের ৪০ জন সেনা মারা গেছেন। ক্রমশ ইউক্রেনের হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে পরিস্থিতি। বাড়ছে মৃত্যু। এই অবস্থায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সামনে এল এক জওয়ানের ভিডিয়ো। বাবা-মা-কে ভালোবাসার বার্তা মন ভিজিয়েছে নেটিজেনদের।

গতকাল সকাল থেকে সারা বিশ্বের নজরে ছিল দক্ষিণ ইউরোপের দিকে। ভোরের আলো ফোটার আগেই ইউক্রেনকে আক্রমণ করেছে রাশিয়া (Russia-Ukraine Conflict)। ভ্লাদিমির পুতিন (Vladimir Putin) যাবতীয় জল্পনা সত্যি করেছেন দেখে ইউক্রেনের বন্ধু দেশগুলির তীব্র প্রতিক্রিয়া আসছিল। তবে রাশিয়ান আগ্রাসন বিন্দুমাত্র কমেনি বরং বেড়েছে। তিন দিক থেকে রাশিয়া আক্রমণ করলেও মাথা না ঝোঁকানোর বার্তা দিয়েছিল ইউক্রেন। ইউক্রেন নেতৃত্ব জানিয়েছে রাশিয়ার আক্রমণে ইতিমধ্যেই ৪০ জন ইউক্রেনীয় মারা গিয়েছেন। পূর্ব, উত্তর ও দক্ষিণ দিক থেকে রাশিয়া ইউক্রেনকে আক্রমণ করেছিল, সেই কারণে একে পূর্ণ যুদ্ধ হিসেবেই মনে করছে ইউক্রেন। ক্রমশই পরিস্থিতি হাতের বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে, সেই আবহেই এক ইউক্রেনিয়ান জওয়ানের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে।ছোট ভিডিয়ো বার্তা ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে দেওয়ালে ছড়িয়ে পড়েছে।ওই ইউক্রেনীয় জওয়ানের ভিডিয়ো বার্তায় অনেকের মন ভারাক্রান্ত হয়ে পড়েছে। রাশিয়ার আগ্রাসনের মধ্যেই নিজের মা-বাবার কথাই মনে পড়েছে সেনাতে কর্মরত ওই যুবকের। ভিডিয়ো বার্তায় তিনি জানিয়েছেন, ‘মা,বাবা আমি তোমাদের ভালোবাসি।’গতকাল সকাল থেকে রাশিয়ার আক্রমণের মুখে কেঁপে ওঠে ইউক্রেনের বিমানবন্দর ও রানওয়ে। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, তাদের বিমান হানায় ইউক্রেন যথেষ্টই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ইউক্রেনিয়ান সেনা রাশিয়ান আক্রমণকে কোনওভাবেই প্রতিহত করার চেষ্টা করেছেন না। সকালের রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ডনবাসে ‘বিশেষ অভিযান’ চালানোর চেষ্টা চালিয়েছে। কালো ধোয়ায় চারিদিক ঢেকে গিয়েছে। দেশ জুড়ে ত্রাহি ত্রাহি রব, শয়ে শয়ে মানুষ রাজধানী কিয়েভ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন। যুদ্ধের এই আবহে ইউক্রেনীয় সেনার ভাইরাল হওয়া ভিডিয়ো নিঃসন্দেহে মন খারাপ করে দেয়।

বৃহস্পতিবার থেকেই পশ্চিম ইউক্রেনের সীমান্তরক্ষীদের ঘাঁটিগুলিতে লাগাতার গোলা এবং রকেট ছুড়তে শুরু করেছিল। শুক্রবার ভোররাত থেকে বেলারুশের মঝয়র সেনাঘাঁটি থেকে সীমান্ত পেরিয়ে রুশ ট্যাঙ্কবাহিনী ঢুকতে শুরু করে ইউক্রেনে।এরই মধ্যে ঝফরিঝাজয়া-সহ সীমান্তের কয়েকটি ইউক্রেনীয় সেনাশিবির ধ্বংসের অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া। বেশ কিছু ইউক্রেন সেনার আত্মসমর্পণের ভিডিয়োও সামনে এসেছে। যুদ্ধের দ্বিতীয় দিনে রাজধানী কিভ-সহ ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে রাশিয়ার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র হানাও অব্যাহত। যুদ্ধের দ্বিতীয় দিনে চলছে বিমান হামলাও। এরই মধ্যে ইউক্রেনের বিমানবাহিনীও এবং ‘এয়ার ডিফেন্স ইউনিট’গুলিও সাধ্যমত প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছে। আকাশে বিমানযুদ্ধে (ডগ ফাইট) ভূপতিত হয়েছে বেশ কয়েকটি রুশ যুদ্ধবিমান। কিভে ভেঙে পড়া এমন একটি রুশ যুদ্ধবিমানের ছবিও প্রকাশিত হয়েছে।রুশ প্রতিরক্ষা বিভাগ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার যুদ্ধের প্রথম দিনে স্থল, আকাশ এবং নৌপথে ইউক্রেনের উপর মোট ২০৩টি হামলা চালানো হয়েছে। ধ্বংস করা হয়েছে মোট ৮৩টি পূর্বনির্দিষ্ট লক্ষ্য। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এটিই রুশ ফৌজের বৃহত্তম অভিযান।ইউক্রেনের সহকারি অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তামন্ত্রী জেরাশচেঙ্কোর অভিযোগ, রাজধানী কিভের সেনা সদরের পাশাপাশি অসমারিক বিমানবন্দর এবং ঘনাবসিতপূর্ণ এলাকাতেও ক্ষেপণাস্ত্র এবং বিমান হামলা চালিয়েছে রাশিয়া।ইউক্রেনের ‘সিলিকন ভ্যালি’ খারকিভ, চোরনোবিলের পরমাণুকেন্দ্র ইতিমধ্যেই রুশ সেনার নিয়ন্ত্রণে বলে মস্কোর দাবি। ইউক্রেনের শহর উপকূলবর্তী মারিউপোল এবং ওডেসায় রুশ নৌবাহিনীর ‘অ্যাম্ফিবিয়ান ল্যান্ডিং ভেহিকল’ থেকেও সেনা অবতরণ শুরু হয়েছে বৃহস্পতিবার। সেখানে ইউক্রেন বাহিনীর প্রত্যাঘাতে বেশ কয়েক জন রুশ সেনার মৃত্যুর খবর মিলেছে।দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর কোনও ইউরোপীয় (Europe) দেশে সবচেয়ে বড় হামলা হল। মস্কো (Moscow) স্থল, সমুদ্র ও আকাশপথে একযোগে হামলা চালানোর পর ইউক্রেনীয় (Ukraine) বাহিনী বৃহস্পতিবার তিন দিকথেকে আসা রুশ (Russia) হানাদারদের সঙ্গে লড়াই করেছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক বলেছে যে ইউক্রেন আক্রমণের প্রথম দিন তারা তাদের সমস্ত লক্ষ্য অর্জন করেছে। ৮৩টি স্থল-ভিত্তিক ইউক্রেনীয় লক্ষ্যবস্তু ধ্বংস করেছে তারা। ইউক্রেনের পুলিস জানিয়েছে, সারা দিনে রাশিয়া ২০৩টি হামলা চালিয়েছে।ইউক্রেনের লক্ষ্যবস্তুতে ক্ষেপণাস্ত্র বর্ষণ হয়েছে। উত্তর ও পূর্ব দিকে রাশিয়া এবং বেলারুশের (Belarus) সীমানা দিয়ে রুশ সৈন্য ঢুকেছে কিয়েভে (Kyiv)। এছাড়াও দক্ষিণ-পশ্চিমে কৃষ্ণ সাগর এবং দক্ষিণ-পূর্বে আজভ সাগর থেকে উপকূলে রুশ সেনা অবতরণ করেছে বলে জানিয়েছে ইউক্রেন।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলেছেন, এবং অবিলম্বে হিংসা বন্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। ভারত সরকার ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের সরিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা জোরদার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.