রিলায়েন্স গোষ্ঠীকে ‘জালিয়াত’ আখ্যা দিয়ে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন অ্যামাজনের (Amazon)

Home লাইফস্টাইল রিলায়েন্স গোষ্ঠীকে ‘জালিয়াত’ আখ্যা দিয়ে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন অ্যামাজনের (Amazon)
রিলায়েন্স গোষ্ঠীকে ‘জালিয়াত’ আখ্যা দিয়ে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন অ্যামাজনের (Amazon)

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: ভারতের রিটেল সেক্টরে আধিপত্য বিস্তারের যুদ্ধ দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। অ্যামাজন (Amazon) থেকে শুরু করে রিলায়েন্স রিটেল (Reliance Retail) এবং ফিউচার রিটেল সহ অনেক গোষ্ঠীই বাজারে রয়েছে। গত বছর কিশোর বিয়ানি তাঁর খুচরো ও পাইকারি ব্যবসা সহ পণ্য পরিবহণ, লজিস্টিক এবং গুদামজাত ব্যবসাগুলি রিলায়েন্স রিটেলকে বিক্রি করতে চেয়েছিলেন। অবশেষে ফিউচার গোষ্ঠীর এই ব্যবসাগুলি অধিগ্রহণ করে নেয় মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স গ্রুপ। এবার ফিউচার গোষ্ঠীর খুচরো বিপণি বিগ বাজারের (Big Bazaar) স্বত্ব কার হাতে থাকবে সেই নিয়ে বিবাদ সৃষ্টি হয়েছে রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্ট্রিস লিমিটেড (Reliance Industries Limited) এবং অ্যামাজনের মধ্যে। বিবাদ এতটাই জোরালো আকার ধারণ করেছে যে আদালতের গন্ডি ছাড়িয়ে তার রেশ এবার পৌঁছে গেল বিজ্ঞাপনেও। রিলায়েন্স ও ফিউচার গ্রুপকে ‘জালিয়াত’ বলে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিয়েছে অনলাইন রিটেল স্টোর অ্যামাজন (Amazon)। এই সংস্থার অভিযোগ, আচমকাই বিগ বাজারের স্টোরগুলি নিজেদের হাতে নিতে শুরু করেছে রিলায়েন্স গোষ্ঠী।

ফিউচার রিটেলের অন্তর্ভুক্ত বিগ বাজারের মালিকানা নিয়ে রিলায়েন্স ও অ্যামাজনের (Amazon) মধ্যে জোরদার আইনি টক্কর চলছে। আইনি রেষারেষি এতদূর গড়িয়েছে যে মার্কিন ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজনের বক্তব‌্য, সম্পূর্ণ বিষয়টি বিচারাধীন থাকা সত্ত্বেও বিগ বাজার স্টোরের মালিকানা নিজেদের নামে করে নিয়েছে রিলায়েন্স। ফিউচার গোষ্ঠীর কর্ণধার কিশোর বিয়ানি তাঁর সংস্থা বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর থেকেই রিলায়েন্স ও অ্যামাজনের মধ্যে আইনি জটিলতা তৈরি হয়। শেষমেশ ২৫ হাজার কোটি টাকায় ফিউচার গ্রুপ অধিগ্রহণ করে রিলায়েন্স। তবে সব ব্যবসাগুলির ক্ষেত্রে এখনও সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি। এই দুই সংস্থার তরফেও এই অধিগ্রহণের চুক্তি নিয়ে অবশ্য কিছু জানানো হয়নি।

২০২০ সালে বিগ বাজার কেনার কথা ঘোষণা করে অ্যামাজন (Amazon)। তখন থেকেই বিতর্কের সূত্রপাত হয়। অ্যামাজনের ঘোষণার পরই বিগ বাজার কিনে নেয় রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্ট্রিস। এতেই শুরু হয়ে যায় বিবাদ। এই বিবাদ প্রথমে ট্রাইবুনাল, পরে আদালত পর্যন্ত গড়ায়। বিষয়টি এখনও দেশের সর্বোচ্চ আদালত অর্থাৎ সুপ্রিম কোর্টের বিচারাধীন। এই পরিস্থিতিতেই সংবাদপত্রে ফলাও করে বিজ্ঞাপন দেয় অ্যামাজন। যেখানে দাবি করা হয়, সুপ্রিম কোর্ট ও ট্রাইবুনালের নির্দেশ লঙ্ঘন করেছে রিলায়েন্স গোষ্ঠী। জাতীয় কোম্পানি আইন অনুযায়ী, আদালতে মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিগ বাজারের অধিকার ফিউচার গোষ্ঠীর হাতেই থাকা উচিত।

উল্লেখ্য, ফিউচার গোষ্ঠীর (Future Group) সাপ্লাই চেইন ফিউচার রিটেলের মধ্যে রয়েছে এফবিবি, বিগ বাজার, ব্র্যান্ড ফ্যাক্টরি, ফুড হল, হোম সেন্টার, সেন্ট্রাল এবং ইজি ডের মতো ব্র্যান্ড। দৈনন্দিন পণ্যের এই বিপণিগুলি সারা ভারতে ছড়িয়ে রয়েছে। ফিউচার গোষ্ঠী হল কিশোর বিয়ানির মস্তিষ্কপ্রসূত সেই সংস্থা, যারা প্যান্টালুন্স ও বিগ বাজারের মতো ব্র্যান্ডের হাত ধরে ভারতের খুচরো বিপণির মানচিত্র বদলের কৃতিত্ব রাখে। ইতিমধ্যেই প্যান্টালুন্স চলে গিয়েছে আদিত্য বিড়লা গোষ্ঠীর হাতে। অন্য দিকে, করোনার কোপে দীর্ঘদিন ধরে বিপণি বন্ধ থাকায় ধাক্কা খেয়েছে ফিউচার গোষ্ঠী। এই অবস্থায় আর্থিক ক্ষতি সামলাতে অন্য সংস্থার সঙ্গে চুক্তি হওয়ারই ছিল বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ফিউচার ও রিলায়েন্স এই দুই সংস্থার ঘোষণা অনুসারে, ব্যবসা কিনতে মোট ২৪,৭১৩ কোটি টাকার লগ্নি করবে রিলায়েন্স। ভবিষ্যতে আরও ১৬০০ কোটির লগ্নির পথও খোলা রাখছে মুকেশ আম্বানীর সংস্থা। বিশ্লেষকদের মতে, এই অধিগ্রহণের হাত ধরে টেলিকমের মতোই দেশের খুচরো ব্যবসায় প্রতিযোগিতা আরও তীব্র হবে। সেই দৌড়ে রিলায়েন্সের প্রতিদ্বন্দ্বী মার্কিন বহুজাতিক সংস্থা অ্যামাজ়ন (Amazon) এবং ওয়ালমার্টের শাখা ফ্লিপকার্ট। তবে ফিউচার গোষ্ঠীতে অ্যামাজ়নের ১.৩ শতাংশ অংশীদারিত্বের কী হবে, তা নিয়ে কোনও পক্ষই মুখ খোলেনি। গত কয়েক মাসে জিয়ো প্ল্যাটফর্মের ৩০ শতাংশেরও বেশি শেয়ার বেচে ঋণমুক্ত হয়েছে রিলায়েন্স। পরবর্তী ধাপে তারা যে খুচরো ব্যবসাকে পাখির চোখ করে এগোবে, তা এক দিক থেকে প্রত্যাশিতই ছিল।

এদিকে ফিউচার গোষ্ঠীর তরফে জানানো হয়েছে, আর্থিক অনটনের কারণে তারা প্রায় ১৭০০ স্টোরের ভাড়া মেটাতে পারছে না। তাই বাধ্য হয়ে সেগুলির মালিকানা নিজেদের নামে করিয়ে নিচ্ছে রিলায়েন্স। পাশাপাশি, ফিউচার রিটেলের ৩০ হাজার কর্মীকে চাকরি দেওয়ার প্রস্তাবও দিয়েছে মুকেশ অম্বানির সংস্থা। অবশ্য ফিউচার গোষ্ঠীর এফএমসিজির (FMCG) মালিকানা অশোক বিয়ানির হাতেই রয়েছে। গত বছর রিলায়েন্সের বার্ষিক বৈঠকের আগে চুক্তি পাকা করতে আগ্রহী ছিল আম্বানি গোষ্ঠী। অনলাইন খুচরো ব্যবসায় অনেক আগেই নিজেদের জায়গা করে নিয়েছে রিলায়েন্স। অ্যামাজন (Amazon) ও ফ্লিপকার্টের সঙ্গেও পাল্লা দিয়েছে মুকেশ আম্বানির এই সংস্থা। ফিউচার রিটেলের অধীনে প্রায় দুই হাজারের মতো বিপণি রয়েছে। যার দখল এবার যেতে চলেছে রিলায়েন্স গোষ্ঠীর হাতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.