রাশিয়া-ইউক্রেন (Russia – Ukraine War) যুদ্ধের ছোঁয়া এবার ভারতেও! বাজারে এল জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা

Home অ‘‌সাধারণ’ রাশিয়া-ইউক্রেন (Russia – Ukraine War) যুদ্ধের ছোঁয়া এবার ভারতেও! বাজারে এল জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা
রাশিয়া-ইউক্রেন (Russia – Ukraine War) যুদ্ধের ছোঁয়া এবার ভারতেও! বাজারে এল জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক : ভারতের (India) এক চা ব্যবসায়ী আসাম ব্র্যান্ডের একটি কড়া স্বাদের চায়ের নাম দিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির (President Volodymyr Zelensky) নামে। নতুন এই ব্র্যান্ডের নামের সঙ্গে একটি স্লোগানও যোগ করেছেন, ‌‘রিয়েলি স্ট্রং’ অর্থাৎ ‘সত্যি কড়া’।

সকালে চা-টা না হলে অনেকেই দিন শুরু করতে পারেন না। এক কাপ চা-এ চুমুক দিয়েই শুরু হয় দিন। আর চায়ের আসরে অনেক দিন আগে থেকেই ঢুকে পড়েছে রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধ (Russia – Ukraine War)।  আর এবার সেই ছোঁয়া মিশে গেল চায়ের স্বাদেও। এখন চাইলে দোকানে গিয়ে বলতেই পারেন ‘আমাকে এক প্যাকেট জেলেনস্কি দিন তো’! একটি স্টার্ট-আপ সংস্থা জেলেনস্কি ব্র্যান্ড নামে একটি অসম চা (Tea) বাজারে এনেছে। অসমের ওই সংস্থা জানিয়েছে, ইউক্রেনের (Ukraine) প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির (President Volodymyr Zelensky) অসীম সাহস আর বীরত্বকে সম্মান জানাতেই তাদের নতুন চা-ব্র্যান্ডের নাম দেওয়া হয়েছে জেলেনস্কির নামে।

ইউক্রেনের (Ukraine) উপর রাশিয়ার হামলা চালানোর পর এখন কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে ইউক্রেনের বিভিন্ন এলাকা। ভেঙে গিয়েছে স্কুল, কলেজ, ঘর, বাড়ি, অফিস, হাসপাতাল। ছবির মতো সাজানো শহর এখন যেন এক মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে দেশের অসংখ্য সাধারণ মানুষের। প্রাণ বাঁচাতে স্বপ্ন দিয়ে বোনা ঘর ছেড়ে পালাতে হয়েছে অনেককেই। অনেকে দেশও ছেড়ে দিয়েছেন। কিন্তু, এই অবস্থাতেও মাথা নত করেনি ইউক্রেন। রাশিয়ার (Russia – Ukraine war) বিরুদ্ধে চোখে চোখ রেখে জারি রয়েছে লড়াই। আর পরিবার নিয়ে পালিয়ে না গিয়ে ইউক্রেনে থেকেই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন জেলেনস্কি। হারার আগে হার স্বীকার করার পাত্র তিনি নন। আর সেই কারণে তাঁকে সম্মান জানাতেই এই চা বাজারে নিয়ে এসেছে অসমের এই চা প্রস্তুতকারক সংস্থাটি। জেলেনস্কি চা বাজারে আনা অ্যারোমিকা টি কোম্পানির কর্ণধার রঞ্জিত বড়ুয়া বলেন, ‘রাশিয়ার শক্তিশালী বাহিনীর বিরুদ্ধে ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট যেভাবে লড়ছেন, এতে তার চরিত্রের দৃঢ়তাই প্রকাশ পেয়েছে। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন (Russia – Ukraine War) ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল আমেরিকা। কিন্তু ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে দেশের মানুষের পাশে থেকে গিয়েছেন। ঠিক যেন আমাদের এই চায়ের মতো। এই দুটি ব্যাপারের মধ্যে আমরা একটা তুলনা খুঁজে পেয়েছি।’ জেলেনস্কি চা তৈরি করা হয়েছে আসামের বেশ কয়েকটি চায়ের ব্লেন্ড থেকে। রঞ্জিত বড়ুয়া চা শিল্পে দীর্ঘদিন থাকলেও সম্প্রতি তিনি চায়ের ব্লেন্ডিং ব্যবসা শুরু করেছেন।

ইউক্রেনের যুদ্ধের (Russia – Ukraine War)সুযোগ নিয়ে ব্যবসায়িক মুনাফা করার জন্য তিনি এই নতুন ব্র্যান্ডের চা চালু করেছেন কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা সত্যি প্রচারের কথা বিবেচনা করেই এই নাম রাখার কৌশল ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু একই সঙ্গে আমাদের এই কড়া স্বাদের চায়ের জন্য এর চেয়ে কোনো উপযুক্ত নাম আর খুঁজে পাইনি।’ রাশিয়া, ইউক্রেনসহ বহু দেশে ভারতীয় চা রপ্তানি করা হয়। তবে রাশিয়ায় এই জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা রপ্তানি করা হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা রাশিয়ায় পাঠালে তা বিক্রি করতে অসুবিধে হবে।’আসামের উত্তর-পূর্বে রাজ্যে অবস্থিত অ্যারোমিকা চায়ের পরিচালক রঞ্জিত বড়ুয়া সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, জেলেনস্কি ব্র্যান্ডের চা বুধবার (১৬ মার্চ) থেকে যাত্রা শুরু করেছে। এটি অনলাইনে পাওয়া যাবে।

প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির (President Volodymyr Zelensky) এই লড়াইকে সম্মান জানিয়েই আসামের চায়ের নাম রাখা হয়েছে ‘জেলেনস্কি– রিয়েলি স্ট্রং’। আপাতত এই চা অ্যারোমিকা টি কোম্পানির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যেই তা ই-কমার্স সাইটগুলোতে চলে আসবে বলে জানা গেছে। চায়ের ২০০ গ্রামের প্যাকেটের দাম ধার্য করা হয়েছে ৯০ রুপি।ভারতের চা বোর্ডের তথ্য অনুসারে, রাশিয়া ভারতীয় চায়ের বৃহত্তম আমদানিকারক। ২০২১ সালে ভারত থেকে রাশিয়া ৩৪ দশমিক শূন্য ৯ মিলিয়ন কেজি চা আমদানি করেছে। অন্যদিকে ইউক্রেন ২০২১ সালে ভারত থেকে ১ দশমিক ৭৩ মিলিয়ন কেজি চা আমদানি করেছে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ (Russia – Ukraine war)  চলছে। ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়েছেন ৩১ লাখের বেশি মানুষ।এ ছাড়া যুদ্ধে (Russia – Ukraine war)  ইউক্রেনের ১৩শ’ সেনা নিহত এবং রাশিয়ার ১৩ হাজার ৮০০ সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। তবে রাশিয়া বলছে, যুদ্ধে তাদের প্রায় ৫০০ সৈন্য নিহত এবং ইউক্রেনের আড়াই হাজারের বেশি সেনা নিহত হয়েছেন।এদিকে জাতিসংঘ জানিয়েছে, রুশ অভিযানে ইউক্রেনে ৭২৬ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ১১২ শিশু রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, ইউক্রেনে আনুমানিক ৫ থেকে ৬ হাজার রুশ সেনা নিহত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.