ইউক্রেন থেকে ভারতীয় পড়ুয়াদের (Students From Ukraine) ফেরালেন ক্যাপ্টেন শিবানী, প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশ

Home Uncategorized ইউক্রেন থেকে ভারতীয় পড়ুয়াদের (Students From Ukraine) ফেরালেন ক্যাপ্টেন শিবানী, প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশ
ইউক্রেন থেকে ভারতীয় পড়ুয়াদের (Students From Ukraine) ফেরালেন ক্যাপ্টেন শিবানী, প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশ

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: অপারেশন গঙ্গায় ফের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় শামিল হলেন আরেক ভারতীয় মহিলা ক্যাপ্টেন। এয়ার ইন্ডিয়ার এই বিমান চালিকার নাম শিবানী কালরা। বর্তমানে সংবাদ শিরোনামে রয়েছেন তিনি।
আর যখন এই কমর্যজ্ঞে ব্যস্ত ছিলেন তিনি, তখন অন্যদিকে তাঁর বাড়িতে ছিল উৎসবের আমেজ। বাড়ির মেয়ের এই কাজের কথা সম্পর্কে যদিও সেই মুহূর্তে ওয়াকিবহাল ছিলেন না বাবা-মা বা তাঁর পরিজনেরা। কারণ, বাড়িতে চলছিল শিবানীর ভাইয়ের বিয়ের প্রস্তুতি। সেই সময়ই একদিনে ফোনে এই কাজের প্রস্তাব আসে তাঁর কাছে। প্রশ্ন করা হয়, ইউক্রেনে যুদ্ধের পরিস্থিতিতে সেখানে আটকে পড়ছেন বহু ভারতীয় পড়ুয়া (Students From Ukraine)। তিনি কি তাঁদের উদ্ধার করার কাজে যেতে ইচ্ছুক? এই প্রশ্ন শুনে দু’মুহূর্তও দেরি করেননি শিবানী। সঙ্গে সঙ্গে তিনি জানিয়ে দেন এই কাজে তাঁর মত রয়েছে। এবং ইউক্রেনে যেতে তিনি রাজি।
প্রসঙ্গত, অতি সম্প্রতি সামনে আসে বাঙালি বিমানচালক (pilot) মহাশ্বেতা চক্রবর্তীর কথা। গত কয়েকদিন ধরেই সংবাদে ও সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চায় ছিলেন তিনি। মহাশ্বেতা বর্তমানে একটি বেসরকারি সংস্থার বিমানচালক। ফার্স্ট অফিসার পদে তিনি কর্মরত। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ‘অপারেশন গঙ্গা’য় রয়েছেন তিনি। শিবানীর মতো ফোন পেয়ে তিনিও সিদ্ধান্ত নেন। বাড়ি ছাড়ার আগে তিনি সেই কথা জানানোর সুযোগ পাননি কাউকেই। বরং অপারেশনের সময় টানা ১৫-১৬ ঘণ্টা ককপিটেই কাটিয়েছিলেন তিনি। খাবার বলতে সঙ্গে ছিল শুধু কফি আর বিস্কুট।


তবে মহাশ্বেতা আর শিবানীর মধ্যে পার্থক্য হল প্রথম জন ফার্স্ট অফিসার এবং দ্বিতীয় জন ক্যাপ্টেন। বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মসূচি ‘অপারেশন গঙ্গা’-র সঙ্গে যুক্ত শিবানী। এই মাসের শুরুর দিকেই ইউক্রেনে যান তিনি। সেখানে গিয়ে ভারতীয় পড়ুয়াদের উদ্ধার (Students From Ukraine) কার্যে হাত লাগান শিবানী। সেখান থেকে আড়াইশোরও বেশি পড়ুয়াকে উদ্ধার করে দিল্লিতে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন তিনি।
তবে ভারতের এই অভিজ্ঞতা যদিও এই প্রথম নয়। এর আগে আরও ৫ বার যুদ্ধক্ষেত্র ইউক্রেনে গিয়ে সেখানে আটকে পড়া ভারতীয় পড়ুয়া ও কর্মরতদের ফেরাতে গিয়েছিল ভারতীয় উদ্ধারকারী দল। যদিও শিবানীর এমন অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হওয়া এই প্রথম!
এই নিয়ে কথা বলতে গিয়ে শিবানী বলেন, ‘আমি যখন বাড়ি থেকে বেরোচ্ছিলাম, হঠাৎ মা আমায় জড়িয়ে ধরেন। এমনটা সাধারণত অন্যদিন কখনওই করেন না। সেই সময় মা তো বটেই আমিও বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম।’
যদিও এমন উদ্ধারকাজের অভিজ্ঞতা শিবানীর এর আগেও রয়েছে। করোনার সময় বিদেশে আটকে পড়া বহু ভারতীয়কে দেশে ফিরিয়ে এনেছিলেন তিনি। তবে যুদ্ধ ময়দানে গিয়ে এমন কাজের অভিজ্ঞতা যদিও এই প্রথম।
শিবানীর কথায়, ‘যুদ্ধের ময়দানে আমার যাওয়ার খবর শুনে সবচেয়ে বেশি ভয় পেয়েছিল আমার মা। বাবা আর ভাইও ভীষণ উদ্বিগ্ন ছিল। ইউক্রেনে পৌঁছনো মাত্র ওদের সঙ্গে ফোনে কথা হয়।


২৪ ফেব্রুয়ারি ভোরবেলা ইউক্রেনে আক্রমণ হানে রাশিয়া (Ukraine-Russia War)। এরপরই বহু ভারতীয় নাগরিক ওই দেশ ছেড়ে নিজের দেশে ফিরে আসার জন্য তৎপর হয়ে ওঠেন। বেশি সংখ্যায় ছিলেন পড়ুয়ারাই (Students From Ukraine)। এছাড়াও সেই তালিকায় ছিল আরও অন্যান্য দেশের নাগরিকরাও।
অধিকাংশ মানুষই গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রথমে ইউক্রেনের সীমান্তে পৌঁছে যান (Ukraine-Russia War)। এরপরই তাঁরা সীমান্ত পার করে রোমানিয়া এবং হাঙ্গেরিতে গিয়ে আশ্রয় নেন। এরপর ভারতীয় উদ্ধারকারী দলের প্রতিনিধি হিসেবে প্রথমে ইউক্রেন ও তারপর সেখান থেকে রোমানিয়ার বুখারেস্টে পৌঁছান শিবানীরা। সেই অভিজ্ঞতার কথা সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে শেয়ারও করেন তিনি। এয়ার ইন্ডিয়ার ককপিটে বসা অবস্থায় (pilot) একটি ছবিও সেখানে যোগ করেছেন তিনি। আর শিবানীর সেই ছবি দেখে তাঁর প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটদুনিয়ার মানুষজন।


এই প্রসঙ্গে শিবানী বলেন, ‘‘উদ্ধারকারী দলের জন্য বুখারেস্টে অপেক্ষা করছিলেন ভারতীয় পড়ুয়ারা (Students From Ukraine)। আমাদের দেখে তাঁদের সকলের ভয় কেটে যায়। বদলে মুখে দেখা দেয় হাসির রেখা। পড়ুয়াদের সঙ্গে আলাপও হয়। বুঝতে পারি তাঁরা সকলেই ভয়ে পেয়ে রয়েছেন। কথা বলে তাঁদের (Students From Ukraine) সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করি। আশ্বস্তও করি যে, তাঁরা সকলকেই নিরাপদে দেশে ফিরবেন!’’
নিজের দেওয়া কথা রেখেছিলেন শিবানী। সেদিনই বুখারেস্ট থেকে ২৪৯ জন ভারতীয় পড়ুয়াকে দিল্লিতে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছিলেন তিনি। শিবানী বলেন, ‘‘বিমানে ওঠার পরও ভয়ে ছিলেন পড়ুয়ারা (Students From Ukraine)। তবে শেষ পর্যন্ত সব কিছুই ঠিকঠাক মিটে যায়।’’
বুখারেস্ট থেকে বিমান নিয়ে সোজা দিল্লিতে অবতরণ করেন শিবানীরা। শিবানীর কথায়, ‘’দিল্লি বিমানবন্দরে নামার পর দেখি সকলে হাততালি দিচ্ছেন। গেট দিয়ে বেরোতেই নজরে পড়ে বাড়ির লোকজনের হাসিমুখ।”
এয়ার ইন্ডিয়ায় গত তিন বছর ধরে কর্মরত শিবানী। তবে এমন সুযোগ এই জীবনে প্রথমবার। ইউক্রেন থেকে পড়ুয়াদের (Students From Ukraine) সম্পূর্ণ নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনতে পেরে তৃপ্ত শিবানী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.