বক্স অফিসে তিনদিনেই রেকর্ড ব্যবসা! চার রাজ্যে করমুক্ত ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files)

Home অ‘‌সাধারণ’ বক্স অফিসে তিনদিনেই রেকর্ড ব্যবসা! চার রাজ্যে করমুক্ত ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files)
বক্স অফিসে তিনদিনেই রেকর্ড ব্যবসা! চার রাজ্যে করমুক্ত ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files)

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক : ১১ মার্চ মুক্তি পেয়েছে পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রির ছবি ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files)।মুক্তির পর থেকেই গোটা দেশ জুড়ে আলোড়ন ফেলেছে এই ছবি। রিলিজের দু’ দিনের মধ্যেই ১২ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে এই ছবি। ছবির সমালোচকরা মনে করছেন, কাশ্মীর ফাইলসের(The Kashmir Files) সাফল্যের যাত্রা এই সবে শুরু। এরই মধ্যে দেশের চার বিজেপি শাসিত রাজ্য গুজরাট, হরিয়ানা এবং মধ্যপ্রদেশে এই ছবিকে করমুক্ত বলে ঘোষণা করা হল। এরই সঙ্গে এই ছবি করমুক্ত করা হয়েছে কর্ণাটকেও। 

গুজরাট, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ এবং কর্ণাটক এই চার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা ট্যুইট করে জানিয়েছেন, এই ছবি ভারতের বেশিরভাগ মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়া উচিত। আর সেই কারণেই করমুক্ত করা হয়েছে। এই চার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের ট্যুইট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ধন্যবাদ জানিয়েছেন ছবির পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী। অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়া এই ছবিকে ঘিরে উচ্ছ্বাস দেখিয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত (Kangana Ranaut)। কঙ্গনা লিখেছেন, এই ছবি প্রমাণ করেছে কেবলমাত্র বেশি টাকা খরচ করলেই সিনেমা হল ভর্তি হয় না। ভাল ছবির চাহিদা এখনও রয়েছে। কঙ্গনা তাঁর বক্তব্যে বলিউড মাফিয়া অর্থাৎ ইঙ্গিতে করণ জোহর, বনশালিকেও কটাক্ষ করেছেন।

ভারত-সহ বিভিন্ন দেশে ৭০০-র কাছাকাছি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে কাশ্মীর ফাইলস (The Kashmir Files)। পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর নিষ্ঠায় এটি কোনও সিনেমা নয়, বলা যায় একটি ঐতিহাসিক তথ্যচিত্র। স্বাধীন দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ গণহত্যার এক জীবন্ত খতিয়ান। পুষ্করনাথের চরিত্রে অনুপম খের (Anupam Kher)। তিনি নিজেই একজন কাশ্মীরি পন্ডিত। তাঁর বাবার চরিত্রটি পর্দায় অসামান্য নৈপুণ্যে রূপায়িত করেছেন অনুপম। কলেজ পড়ুয়া কৃষ্ণ হয়েছেন দর্শন কুমার। আইএএস অফিসার ব্রহ্ম চরিত্রে মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakra। রাধিকা চরিত্রে অন্যতম প্রযোজক পল্লবী জোশী। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের তৎকালীন ডিজিপির রোলে আছেন পুনীত ইশার।

কুখ্যাত জঙ্গী জিহাদী বিট্টার চরিত্রে চিন্ময় মন্ডলেকার। এঁরা তো বটেই ছোট ছোট চরিত্রে যারা আছেন প্রত্যেকেই যথাযথ। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিবেক অগ্নিহোত্রী আগেই জানিয়েছেন, চার বছর ধরে গবেষণার ফসল তাঁর এই ছবি। সংলাপের প্রতিটি শব্দ তিনি নিয়েছেন অত্যাচারিত কাশ্মীরি পণ্ডিতদের মুখ থেকে। ২০১৯-এর আগস্টে প্রথম পোস্টার প্রকাশ থেকে মুক্তির আগের দিন পর্যন্ত একাধিক মামলা হয়েছে ‘কাশ্মীর ফাইলস'(The Kashmir Files) বিরুদ্ধে। ধোপে টেকেনি অভিযোগ। কলকাতা-সহ দেশের প্রতিটি শহরে রমরম করে চলছে কাশ্মীরি হিন্দু পণ্ডিতদের করুণ আখ্যান। হরিয়ানা সরকার ইতিমধ্যে এই সিনেমায় কর মকুব করেছে। আরও কিছু রাজ্য এগোচ্ছে সে পথে। ছবি মুক্তির তৃতীয় দিনেই বোঝা যায় অন্তত হাজার কোটি টাকার ব্যবসা করবে এই সিনেমা।

কাশ্মীরী পুলিশের ফাইল থেকে যতটুকু জানা যায়, শিক্ষাবিদ সর্বানন্দ কাউল প্রেমী যেখানে তিলক পরতেন কপালের ঠিক সেই অংশে পেরেক ঠুকে হত্যা করা হয়েছিল। জেহাদিদের বন্দুকের মুখে খুন হওয়া স্বামী বিকে গাঞ্জোর রক্তে ভাত মেখে খেতে হয়েছিল স্ত্রীকে। সরলা ভাট’কে গনধর্ষনের পর উলঙ্গ দেহ পড়েছিল রাস্তায়। মাট্টানের রবীন্দর পন্ডিতকে খুন করে তাঁর দেহের উপর নেচেছিল জেহাদীরা। সোপিয়ানে ব্রিজলাল ও ছোটির দেহ জীপে বেঁধে প্রকাশ্য রাস্তায় টানা হয়েছিল। বন্দীপুরার স্কুলশিক্ষিকা গিরজা টিক্কা মৃত্যুর আগের মুহূর্ত পর্যন্ত গণধর্ষিতা হয়েছিলেন। এমন লাখ লাখ ঘটনার অংশবিশেষ উঠে এসেছে ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’-এ। বিদ্যুত ও টেলিফোন লাইন কেটে মসজিদের মাইক থেকে নির্দেশ এসেছিল হয় ধর্মান্তরিত হও বা কাশ্মীর ছাড়ো নচেৎ মৃত্যুবরণ করো। যাওয়ার আগে নারীদের রেখে যাও। ওদের আমরা ভোগ করব। কুৎসিততম এসব ঘটনা তাঁর ছবি থেকে বাদ দেননি বিবেক। জঙ্গিদের বন্দুকের নল থেকে বাদ ছিল না শিশুরাও। দর্শকাসনে বসে তাই কাশ্মীরের অত্যাচারিত অঞ্জু টিক্কুর মনে পড়ে তাঁর ভাইয়ের কথা। চোখের সামনে যাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল।

কুখ্যাত সন্ত্রাসবাদী বিট্টা কারাটে ২৫ জনেরও বেশি পণ্ডিতকে খুনের পর গর্বের সঙ্গে সেকথা বলে বেড়াত। এই নিষ্ঠুর খলনায়কের চরিত্রে প্রায় অচেনা চিন্ময়ের অভিনয় দেখে শিউরে উঠতে হয়। মহিলাদের বিবস্ত্র করা, গুলি করে শিশু হত্যা, পণ্ডিতদের কপালে তিলকের উপর গুলি চালানোর পর এক চোখ বন্ধ করার বিশেষ ম্যানারিজমে শিরদাঁড়া বেয়ে ঠান্ডা স্রোত বয়ে যায়। জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্ট গণহত্যার কিছু দায় স্বীকার করেছে। বছর তিনেক আগে সংবিধান থেকে অবলুপ্ত হয়েছে ৩৭০ ধারা। কিন্তু হিন্দু পণ্ডিতরা এখনও ফিরতে পারেননি কাশ্মীর উপত্যকায়। জম্মুর এক কামরা ঘরে বহু কষ্টে দিন কাটাচ্ছে বহু পরিবার। তাঁদের বাড়িঘর ও ভূসম্পত্তি গ্রাস হয়ে আছে। কাশ্মীরি সমাজের সদস্য সুনীল কৌরের প্রশ্ন, ‘সরকার কেন চুপ করে আছে। কেন আমরা বিচার পাব না?’

‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files)দর্শককে সত্য ইতিহাসের সামনে দাঁড় করায়। দেশের বৃহত্তম গণহত্যার বিচার চায় এই সিনেমা। কাশ্মীরের সংখ্যালঘু হিন্দুদের তাড়িয়ে দেওয়ার ৩১ বছর পরেও কেন তাঁরা নিজের বাড়িতে ফিরতে পারেননি আজও, সেই প্রশ্নই তোলে এই ছবি। সারা পৃথিবীতে স্কুলস্তর থেকেই শিশুরা জেনে যায় হিটলারের ইহুদি গণহত্যার কুকীর্তি। ভারতীয় পড়ুয়াদের পাঠক্রমেও আছে সেই নাৎসি অত্যাচারের কাহিনি। কিন্তু কোনও এক রহস্যজনক কারণে দেশবাসী জানতেই পারে না নিরীহ কাশ্মিরী পণ্ডিতদের উপর নির্যাতনের কথা। গণধর্ষণ, গণহত্যা এবং লক্ষ লক্ষ মানুষের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে তাদের বাড়ি ছাড়া করার করুন কাহিনি বছরের পর বছর বন্দি হয়ে পরেমথাকে সরকারি নথিতে। মাস যায় বছর যায়। স্বজন হারানো কাশ্মীরি পণ্ডিতদের পরিবার বাড়িছাড়া থাকে তিন দশক। দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা এমন সাতশো পরিবারের সঙ্গে কথা বলার নির্যাসে তৈরি হয় ১৭০ মিনিট দৈর্ঘের সিনেমা ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’।(The Kashmir Files) হলোকস্টের থেকেও যা মর্মান্তিক।

রবিবার নিউটাউনের ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ (The Kashmir Files) একটি মাল্টিপ্লেক্সে জড়ো হয়েছিল কলকাতার কাশ্মীরি সমাজ। ১৯৯০ সালে যাঁরা কাশ্মীর ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন সেই মানুষগুলো। আত্মীয় পরিজনদের রক্তে রাঙা পোশাকে জম্মুর উদ্দেশ্যে পাড়ি দিয়েছিলেন তাঁরা। কাশ্মীরের মুছে ফেলা সেই রক্তাক্ত ইতিহাস যখন পর্দায় দেখানো হচ্ছিল, স্থির থাকতে পারছিলেন না কৃষ্ণা কাচরু, সুমন রায়না, প্রীতি থুসোরা। কাশ্মীরিদের পাশাপাশি দর্শকাসনে উপস্থিত ছিলেন বহু বাঙালি। বেরনোর সময় কাঁদছেন না, মেলেনি এমন একজনও। না, শুধু হাহুতাশ নয়, শোকের সঙ্গে দেখা গেল ক্রোধ। কেন স্বাধীন দেশের সরকার গনহত্যার বিচার করল না? কেন কেউ শাস্তি পেল না? কেন ৩১ বছর পরেও ‘নিজ ভূমে পরবাসী’ হয়ে থাকতে হচ্ছে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের? এমন প্রশ্নই ভারত সরকারের উদ্দেশ্যে ছুঁড়ে দিচ্ছেন দর্শকমণ্ডলী। অনুপম খের (Anupam Kher), মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty), দর্শন কুমার, পল্লবী যোশী অভিনীত এই ছবির টিমকে ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.