মেসেজের গোপন স্ক্রিনশট নিলেই সতর্ক বার্তা! ফেসবুক মেসেঞ্জারের নতুন ফিচার

Home লাইফস্টাইল মেসেজের গোপন স্ক্রিনশট নিলেই সতর্ক বার্তা! ফেসবুক মেসেঞ্জারের নতুন ফিচার
মেসেজের গোপন স্ক্রিনশট নিলেই সতর্ক বার্তা! ফেসবুক মেসেঞ্জারের নতুন ফিচার

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: এবার গ্রাহকদের জন্য আরও নজরদারি বাড়াল ফেসবুক মেসেঞ্জার। সম্প্রতি ফেসবুক নিয়ে এসেছে একাধিক নতুন ফিচার। যার মধ্যে ফেসবুক মেসেঞ্জার পেয়েছে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন, স্ক্রিনশট ডিটেকশন, মেসেজ রিয়্যাকশনস, টাইপিং ইন্ডিকেটরস প্রমুখ। মেসেঞ্জারের এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড চ্যাটের জন্য যে দুটি বিশেয ফিচারের কথা ফেসবুকের তরফে জানান হল, তা হল স্ক্রিনশট ডিটেকশন ফিচার এবং মেসেজ রিয়্যাকশন ফিচার। অর্থাৎ মেসেঞ্জারে নতুন আপডেট হল গোপন কথার স্ক্রিনশট কেউ নিলেই পাওয়া যাবে নোটিফিকেশন।

জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ গ্রাহকরা দীর্ঘদিন এরকমই একটি ফিচারের অপেক্ষায় রয়েছেন। যেহেতু ফেসবুক মেসেঞ্জারে এই ফিচার আনা হল, তাই আশা করা হচ্ছে খুব শীঘ্রই হোয়াটস অ্যাপেও একই ফিচার যুক্ত করা হবে।

এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশনের অর্থ যে দু’জনের মধ্যে কথোপকথন হয়েছে, তারা বাদে সেই তথ্য অন্য কেউ দেখতে পাবেন না। আর এবার থেকে থেকে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্ট করা মেসেঞ্জার চ্যাটে ডিজাপিয়ারিং মেসেজের কেউ স্ক্রিনশট নিলে  নোটিফিকেশন পাবেন গ্রাহক।

ফেসবুক মেসেঞ্জারের জন্য স্ক্রিনশট সনাক্তকরণের পদ্ধতি সম্পর্কেও গ্রাহকদের অবহিত করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে, মেসেঞ্জারে ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজের স্ক্রিনশট নিলে, তখনই সংশ্লিষ্ট গ্রাহক একটি সতর্ক বার্তা পাবেন। তবে সবাই এখন এই অপশনটি ব্যবহার করতে পারবেন না। শীঘ্রই তা সকলের জন্য আসছে। এর পাশাপাশি মেসেজ রিঅ্যাকশন ফিচারও রিলিজ করা হচ্ছে। মেসেঞ্জারের এই অপশনটির সাহায্যে ইমোজি সহ মেসেজের প্রতিক্রিয়া জানাতে পারেন।

ফেসবুক মেসেঞ্জারের এই নতুন ফিচার আনার কথা জানিয়েছেন, মেসেঞ্জারের প্রডাক্ট ম্যানেজার টিমোথি বাক। ব্লগ পোস্টে টিমোথির বক্তব্য, গ্রাহকদের স্বার্থ সুরক্ষিত রাখতে ও তাঁদের চ্যাটের গোপনীয়তা নিশ্চিত করতেই নতুন ফিচার আনা হল।

ফেসবুক কর্তা মার্ক জুকেরবার্গও জানিয়েছিলেন, ব্যক্তিগত চ্যাটের পাশাপাশি মেসেঞ্জারে গ্রুপ চ্যাট, গ্রুপ অডিও বা ভিডিও কলের ক্ষেত্রেও এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন কার্যকর হবে।

যদিও ফেসবুকের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিনের অভিযোগ, তারা নিজেদের এক্তিয়ারের বাইরে গিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়ে তা অন্য সংস্থাকে অনৈতিকভাবে বিক্রি করে ব্যবসা করার মতো অনৈতিক অভিযোগও উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে। যার বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সঙ্গে লড়াই চলছে ফেসবুকের। যদিও বরাবরই এধরনের অনৈতিক কোনও কাজের অভিযোগ মানতে অস্বীকার করেছে ফেসবুক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.