প্রয়াত শেন ওয়ার্ন (‌Shane Warne)! হৃদরোগে বিদায় মাত্র বাহান্নতেই

Home Uncategorized প্রয়াত শেন ওয়ার্ন (‌Shane Warne)! হৃদরোগে বিদায় মাত্র বাহান্নতেই
প্রয়াত শেন ওয়ার্ন (‌Shane Warne)! হৃদরোগে বিদায় মাত্র বাহান্নতেই

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: তাঁর বিষাক্ত স্পিনের ছোবল বারেবারে শেষ করে দিয়েছে ব্যাটসম্যানদের ইনিংস। এবার জীবনের ইনিংস শেষ হয়ে গেল শেন ওয়ার্নের (Shane Warne)। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন অস্ট্রেলিয়ার এই কিংবদন্তি স্পিনার। বয়স হয়েছিল ৫২। এমনিতে অসুস্থতার কোনও লক্ষণ ওয়ার্নের (Shane Warne) মধ্যে ছিল না। কয়েক ঘণ্টা আগেও রডনি মার্শের প্রয়াণে শোকজ্ঞাপন করেছিলেন। ওই টুইটের (twitter) কিছুক্ষণ পরেই নাকি অসুস্থ বোধ করেন ওয়ার্ন (Shane Warne)। বাড়িতেই তাঁর চিকিৎসা চলছিল। শুক্রবার ভারতীয় সময়ে সন্ধেবেলা তাঁর ম্যানেজমেন্টের তরফে জানানো হয়, ওয়ার্নের (Shane Warne) জীবনাবসান ঘটেছে। একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, ‘চিকিৎসকরা তাঁদের সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ওয়ার্নকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।’ এদিকে ওয়ার্নের পরিবারের তরফে প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘যাঁরা পাশে ছিলেন, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ। কিন্তু এখন আমরা একটু একান্তে থাকতে চাইছি।


১৩ সেপ্টেম্বর ১৯৬৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিজিট শহরে জন্ম হয়েছিল ওয়ার্নের (Shane Warne)। স্কুল ক্রিকেটেই নিজের প্রতিভা প্রমাণ করে বৃত্তি আদায় করে নেন। পাশাপাশি চলছিল ক্লাব ক্রিকেট। ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবলেও প্রতিভার স্বাক্ষর রাখছিলেন তিনি। তবে ফুটবলের চেয়ে ক্রিকেটেই যে তাঁর কেরিয়ার বেশি উজ্জ্বল হতে চলেছে, সেটা বুঝে নিতে বেশি সময় নেননি সোনালি চুলের এই স্পিনার। যদিও কেরিয়ারের শুরুতে অফ এবং লেগস্পিন— দুটোই করতেন। কিন্তু এক পর্যায়ে গিয়ে মনোনিবেশ করেন লেগস্পিনেই (leg spin)।
ওয়ার্নের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের শুরুটা ছিল একেবারেই সাদামাটা। ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট (test) সিরিজে অভিষেক হয় তাঁর। ১৯৯২ সালে সিডনিতে ভারতের বিপক্ষে ৫ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হাতেখড়ি হয় ওয়ার্নের। শুরুটা মোটেও ভাল করেননি তিনি। ১৫০ রান দিয়ে মাত্র ১ উইকেট (‌রবি শাস্ত্রীর)‌ নেন তিনি। বাদও পড়েন। পরে নিজের জাত চেনান ১৯৯২ সালেরই শেষের দিকে শ্রীলঙ্কার (srilanka) বিরুদ্ধে সিরিজে। সেবার তাঁর জন্যই জেতে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তারপরেও অফফর্মের জন্য বাদ পড়তে হয় তাঁকে।
ভবিষ্যতের কিংবদন্তি হিসেবে ওয়ার্নের (Shane Warne) যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৩ সালে। ঘরের মাঠে বক্সিং ডে–র ম্যাচ ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে। প্রথম ইনিংসে ৬৫ রান দিয়ে পেলেন মাত্র ১টি উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়ার্ন তাঁর ম্যাজিক মাত্র ৫২ রানের বিনিময়ে ৭ উইকেট তুলে নিলেন। হলেন ম্যাচের সেরা।
সেখান থেকে শুরু করে ওয়ার্ন একে একে বিশ্ব ক্রিকেটে (Cricket) দুর্জয় সব শৃঙ্গ জয় করেছেন। একমাত্র ভারতের বিরুদ্ধে তিনি খুব একটা সফল নন। ভারত (india) বাদে এমন কোনও ক্রিকেট খেলিয়ে দেশ নেই, যাদের কাছে ওয়ার্ন আতঙ্ক হয়ে উঠতে পারেননি। শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অফস্পিনার মুথাইয়া মুরলীধরনের (muthia Murlidharan) সঙ্গে তাঁর তুলনা হয়ে এসেছে সব সময়েই। পাশাপাশি ব্যাটারদের মধ্যে শচীন তেন্ডুলকরের (Sachin Tendulkar) সঙ্গে ওয়ার্নের (Shane Warne) দ্বৈরথ বিশ্বক্রিকেটের সর্বাধিক আলোচিত অধ্যায়গুলোর মধ্যে একটা।
স্বভাবতই ওয়ার্নের (Shane Warne) প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমেছে ক্রিকেট বিশ্বজুড়ে। টুইটারে (twitter) শোকজ্ঞাপন করেছেন দেশবিদেশের বর্তমান ও প্রাক্তন তারকারা। কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত লিখেছেন ‘ওয়ার্নের প্রয়াণের খবরটা পেয়ে আমি শোকস্তব্ধ। ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বকালের সেরা রিস্টস্পিনারদের মধ্যে ও একজন ছিল। ওয়ার্নের পরিবারকে সমবেদনা জানাই।’ ভিভিএস লক্ষ্মণের (VVS Laxman) কথায়, ‘অবিশ্বাস্য খবর। এতটাই অবাক হয়েছি যে ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।’ এদিকে আর এক ভারতীয় কিংবদন্তি বীরেন্দ্র শেওয়াগের (Virender Sehwag) ট্যুইট, ‘স্পিন বোলিংকে যিনি আকর্ষণীয় বানালেন, সেই শেন ওয়ার্ন (Shane Warne) আর নেই‌!‌ জীবন খুবই ভঙ্গুর।’
অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ১৪৫টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন ওয়ার্ন। নিয়েছেন ৭০৮টি উইকেট। টেস্টে তাঁর বোলিং গড় ২৫.‌৪। ৫ উইকেট নিয়েছেন ৩৭বার। সেরা বোলিং ৭১ রানে ৮ উইকেট। ওয়ান ডে ক্রিকেটে খেলেছেন ১৯৪টি ম্যাচ। নিয়েছেন ২৯৩টি উইকেট। বোলিং গড় ২৫.‌৭। সেরা বোলিং ৩৩ রানে ৫ উইকেট।
এদিকে নিজের প্রয়াণের কিছুক্ষণ আগেই অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট কিংবদন্তি রডনি মার্শের প্রয়াণে টুইটারে ওয়ার্ন লিখেছিলেন, ‘মার্শ শৈশবে আমাদের মতো উঠতি ক্রিকেটারদের অনুপ্রেরণা ছিলেন। ক্রিকেটকে উনি অনেক কিছু দিয়েছেন। মার্শের পরিবারকে সমবেদনা জানাই।’
নিয়মিত ধূমপানের (smoking) কুঅভ্যাস ছিল ওয়ার্নের। ভক্তদের দাবি, সেই অভ্যাসই নাকি ওয়ার্নের হৃদরোগের (heart attack) কারণ হয়ে দাঁড়াল। ধূমপানের অভ্যাস ছাড়াও একাধিকবার নানা বিতর্কে জড়িয়েছেন এই অজি তারকা। কখনও স্লেজিং, কখনও ক্রিকেট জুয়াড়ির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা, কখনও নিষিদ্ধ ড্রাগ সেবন কখনও আবার একের পর এক নিষিদ্ধ মাদক সেবনের অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। জড়িয়েছেন অগণিত যৌন কেলেঙ্কারিতেও। পাশাপাশি স্টিভ ওয়া (steve Waugh) থেকে রিকি পন্টিংদের (ricky ponting) সঙ্গেও বিবাদে জড়িয়েছেন। তবু শেন কিথ ওয়ার্ন নামটা শুনলে ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে মাইক গ্যাটিংকে করা সেই ‘বল অফ দ্য সেঞ্চুরি’–র কথাই মাথায় আসবে। অস্ট্রেলীয় এই কিংবদন্তিকে স্মরণ করা হবে শ্রদ্ধায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.