দিল্লির বাইরে প্রথম জয় আপের, পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022) কেজরীর মান রাখলেন ‘কৌতুকশিল্পী’ ভগবন্ত মান

Home দেশের মাটি দিল্লির বাইরে প্রথম জয় আপের, পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022) কেজরীর মান রাখলেন ‘কৌতুকশিল্পী’ ভগবন্ত মান
দিল্লির বাইরে প্রথম জয় আপের, পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022) কেজরীর মান রাখলেন ‘কৌতুকশিল্পী’ ভগবন্ত মান

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: আজ প্রকাশিত হয়েছে উত্তরপ্রদেশ, মণিপুর, পাঞ্জাব(Punjab Assembly Election 2022), উত্তরাখণ্ড ও গোয়া-পাঁচটি রাজ্যের নির্বাচনী ফলাফল। ২০২৪ এ লোকসভা নির্বাচনের আগে এই পাঁচটি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন প্রায় সব রাজনৈতিক দলের কাছে, সর্বোপরি বিজেপির কাছে ‘অ্যাসিড টেস্ট’ ছিল। কয়েকদিন আগেই টানটান উত্তেজনার মধ্যে দিয়ে এই পাঁচটি রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আজ সকাল থেকে তার ফলপ্রকাশ শুরু হতে দেখা যায়, উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, গোয়া ও মণিপুরে এগিয়ে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। বেলা গড়াতেই দেখা যায়, এই চার রাজ্যে আসনসংখ্যা বেড়েই চলেছে বিজেপির। কিন্তু উলটপুরাণ দেখা গেল পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022)। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, পাঞ্জাব দখলের স্বপ্ন এবারও পূরণ হচ্ছে না বিজেপির। বেলা ১:৩০ পর্যন্ত পাওয়া সংবাদ অনুসারে পাঞ্জাবের ১১৭টি আসনের মধ্যে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ) এগিয়ে রয়েছে ৯১টি আসনে, জাতীয় কংগ্রেস এগিয়ে রয়েছে ১৭টি আসনে, আকালি দল এগিয়ে ৬টি আসনে, বিজেপি এগিয়ে ২টি আসনে ও অন্যান্যরা ১টি আসনে এগিয়ে।

একথা বলা যেতেই পারে, বাকি চারটি রাজ্যের তুলনায় পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022) ধরাশায়ী হয়েছে বিজেপি। এখনও পর্যন্ত মাত্র দুটি আসনে এগিয়ে তারা। পাঞ্জাব হাতছাড়া হতে চলেছ জাতীয় কংগ্রেসেরও। এই প্রথমবার দিল্লির বাইরে একটি রাজ্যের ক্ষমতায় আসতে চলেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ)। নির্বাচনের আগে বিজেপি বরাবরই অভিযোগ করেছে, আপ (AAP) প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়ালে ভোটে জেতার জন্য ‘হিন্দুত্বের তাস’ খেলছেন। কিন্তু খড়গপুর আইআইটি-র প্রাক্তন ছাত্র স্পষ্টতই বলেছিলেন, মানুষের ভালোবাসার কাছে সব ষড়যন্ত্র হার মানবে। আর বাস্তবেও ঘটলো এমনটাই। পাঞ্জাবের মানুষ বিপুল ভোট দিয়ে নির্বাচনে জয়ী করলেন আপকে।

আরও জানতে পড়ুন – Punjab Assembly Election 2022 – জয়ের পর আপের(AAP)বিজয়োল্লাসে ফের দৃশ্যমান ‘বেবি কেজরিওয়াল’

দিল্লির বাইরে এই প্রথমবার কোনও রাজ্যের ক্ষমতায় এলো আপ। বিজেপি ও কংগ্রেসের সঙ্গে টক্কর দেওয়া সহজ ছিল না। কিন্তু সেই অসম্ভবকেই সম্ভব করে দেখালেন কেজরিওয়াল। নির্বাচনের পরে যে বুথফেরত সমীক্ষাগুলি হয়েছিল, প্রায় প্রতিটি সমীক্ষাই বলেছিল পাঞ্জাবের (Punjab Assembly Election 2022) ক্ষমতা দখল করতে চলেছে আপ। বস্তুত ১১৭টি আসনের মধ্যে ৯১টি আসনে এগিয়ে থেকে পাঞ্জাবে প্রায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে চলেছে আপ।

পাঞ্জাবে প্রতিটি নির্বাচনী জনসভাতেই (Election 2022) আপের নেতারা ‘দিল্লি মডেলের’ কথা তুলে ধরছিলেন। রাজধানীর শাসনক্ষমতায় এসে সীমিত সাধ্যের মধ্যেই যেভাবে দিল্লির মানুষকে পরিষেবা দিয়েছেন কেজরিওয়াল, তা কারুরই অজানা নয়। সেই কথাগুলিকেই পাঞ্জাব (Punjab Assembly Election 2022) নির্বাচনে হাতিয়ার করেছিলেন আপ নেতারা। তাছাড়া আপের উদ্যোগে দিল্লিতে ‘মহল্লা ক্লিনিক’ চালু করা, বিদ্যুতের মাসিক খরচ কমানো-এই বিষয়গুলি আকৃষ্ট করেছিল পাঞ্জাবের মানুষদেরও।

গোটা পাঞ্জাব জুড়েই গত দু’বছর ধরে ছিল বিজেপিবিরোধী হাওয়া। সংসদে বিজেপির আনা তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে যে রাজ্য থেকে কৃষকরা একত্রিত হয়ে আন্দোলন করতে শুরু করেন, সেই রাজ্যটির নাম পাঞ্জাব (Punjab)। সিঙ্ঘু সীমান্তে জমায়েত হয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বুকে কাঁপন ধরিয়ে দিয়েছিলেন পাঞ্জাবের কৃষকেরা। এরপর সারা দেশের কৃষকেরা একত্রিত হয়ে তীব্র আন্দোলন শুরু করেন। দেশজোড়া বিক্ষোভের সামনে পিছু হটতে বাধ্য হন নরেন্দ্র মোদি। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে তিনি তিন কৃষিবিল বাতিল ঘোষণা করতে বাধ্য হন।

নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে জাতীয় কংগ্রেসেরও। বিশেষজ্ঞদের মতে, পাঞ্জাবে নির্বাচনে (Punjab Assembly Election 2022) পরাজয়ের জন্য জাতীয় কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বও খানিকটা দায়ী। কয়েকদিন আগেই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী বদল করে কংগ্রেস। অমরিন্দর সিংকে সরিয়ে শিখ দলিত নেতা চরণজিৎ সিং চান্নিকে মুখ্যমন্ত্রী করে কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। জানা যায়, অমরিন্দর সিংকে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে সরানোর জন্য কংগ্রেস হাইকম্যান্ডের ওপর চাপ সৃষ্টি করছিলেন পাঞ্জাব কংগ্রেসের কয়েকজন প্রভাবশালী নেতা। তাঁদের মধ্যে চান্নিও ছিলেন। অনেকগুলি নামই সেই সময় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে ছিল। কিন্তু সব নামকে পিছনে ফেলে দলিত শিখ নেতা চরণজিৎ সিং চান্নিকেই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত করে কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। ৫৮ বছর বয়সী চান্নিও অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছেন এবারের নির্বাচনে।

২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের সময় থেকে পঞ্চনদের তীরে লড়াই শুরু করেছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। ৪টি আসনে জয়লাভ করেছিলো আপ। তারপরই পাঞ্জাবে সংগঠন বাড়ানোর কাজ শুরু করে তারা। ২০১৭ বিধানসভা নির্বাচনে পাঞ্জাবে ২০টি আসন পেয়েছিলেন কেজরিওয়াল। এবার ৯১টি আসন দখল করলেন তিনি। পাঞ্জাবে (Punjab Assembly Election 2022) প্রবল বিজেপিবিরোধী হাওয়া ও শাসক কংগ্রেসের ছন্নছাড়া অবস্থা, দু’টি বিষয়ই কেজরিওয়ালের পক্ষে গিয়েছে। বেকারত্ব দূরীকরণ, মাদকসমস্যা দূরীকরণ ও দুর্নীতিমুক্ত সরকার-এই তিনটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দিয়ে পাঞ্জাব জুড়ে প্রচার করেছিলেন আপের নেতা-কর্মীরা। আর তাতেই বাজিমাত করেছে তারা।

পাঞ্জাবে কেজরিওয়ালের মুখে হাসি ফোটাতে যাঁর অবদান সবথেকে বেশি বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা, তাঁর নাম ভগবন্ত মান। একদা কৌতুকশিল্পী ভগবন্তই ছিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী। বৃহস্পতিবার গণনার শুরু থেকেই এগিয়ে ছিলেন তিনি। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, বিপুল ভোটে এগিয়ে আছেন তিনি। মজার ব্যাপার হলো পাঞ্জাবে ভগবন্তের পরিচয় রাজনীতিবিদ হিসাবে নয়, কৌতুকশিল্পী ও অভিনেতা হিসাবে। নব্বইয়ের দশকে টেপরেকর্ডার-ক্যাসেটের জমানায় ভগবন্তের নাম শুনলেই হাসি খেলে যেতো আমজনতার মুখে। দেশের রাজনৈতিক নেতাদের নিয়ে ভগবন্তের নানা কৌতুকের ক্যাসেট বিক্রি হতো প্রবল পরিমাণে। সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন তিনি। তাঁর অভিনীত একটি সিনেমা জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছিল।

সেদিনের সেই কৌতুকশিল্পীই আজ পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন। নির্বাচনে দাঁড়িয়ে তিনি ঘোষণা করেছিলেন, পাঞ্জাবকে মাদকমুক্ত করবেন তিনি। আপ ইস্তেহারেও উল্লেখ করেছিল, পাঞ্জাবে তারা ক্ষমতায় এলে ‘ড্রাগ টাস্ক ফোর্স’ গঠন করার উদ্যোগ নেবে তারা। একজন সাধারণ মানুষ হিসাবেই পাঞ্জাবের সাধারণ মানুষের পাশে থাকবেন, নির্বাচনী প্রচারে এমনটাই বলেছিলেন ভগবন্ত। আগামীদিনে পাঞ্জাবে কেমনভাবে পরিচালিত হবে আপ সরকার, সময়ই তার উত্তর দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.