‘কেজরি আপনি শুনুন’, ‘তবে যোগী আপনিও শুনে রাখুন’! ট্যুইটে চরমে দুই মুখ্যমন্ত্রীর ব্লেমগেম  

Home দেশের মাটি ‘কেজরি আপনি শুনুন’, ‘তবে যোগী আপনিও শুনে রাখুন’! ট্যুইটে চরমে দুই মুখ্যমন্ত্রীর ব্লেমগেম  
‘কেজরি আপনি শুনুন’, ‘তবে যোগী আপনিও শুনে রাখুন’! ট্যুইটে চরমে দুই মুখ্যমন্ত্রীর ব্লেমগেম  

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: বাংলায় একটা কথা আছে, ‘সেয়ানে সেয়ানে কোলাকুলি’, তবে কোলাকুলির পরিবর্তে ‘লড়াই’ শব্দটা বসিয়ে দিলে যা হয়, তারই সাক্ষী রইল নেটপাড়া। উত্তর প্রদেশের বিধানসভা ভোটের আগে সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বনাম দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ট্যুইটযুদ্ধে সরগরম নেটপাড়া। বৃহস্পতিবার থেকে দেশের বৃহত্তম রাজ্যে শুরু হচ্ছে সাত দফার বিধানসভা নির্বাচন। ঠিক তারই দু’দিন আগেই যোগী-কেজরির বাগযুদ্ধে আরও বাড়ল ভোটের আঁচ।

শুরুটা করেছিলেন যোগীই। করোনাকালে পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রসঙ্গ টেনে তিনিই প্রথম ট্যুইটে কেজরিওয়ালকে খোঁচা দেন। লেখেন, ‘কেজরিওয়াল শুনুন, করোনার সময় যখন গোটা মানবজাতি নিদারুণ যন্ত্রণায় কাতর, তখন আপনি উত্তর প্রদেশের শ্রমিকদের দিল্লি ছাড়তে বাধ্য করেছেন৷ আপনার সরকারের অগণতান্ত্রিক এবং অমানবিক আচরণ রেয়াত করেনি দুধের শিশু আর মহিলাদেরও। মাঝরাতে দিল্লি-উত্তর প্রদেশ সীমান্তে তাদের অসহায় অবস্থায় ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর আপনাকে একজন বিশ্বাসঘাতক বলব নাকি…৷’

উল্লেখ্য সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লোকসভায় রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর ধন্যবাদজ্ঞাপন বক্তৃতা দিচ্ছিলেন। তখনই তিনি লকডাউন চলাকালীন পরিযায়ী শ্রমিকদের অবস্থা নিয়ে কংগ্রেস আর আপকে তুলোধনা করেন৷ মোদি বলেন, ‘পরিযায়ী শ্রমিকরা যাতে মুম্বই ছাড়তে পারে, তার জন্য কংগ্রেস তাদের বিনামূল্যে টিকিট দিয়েছে ৷ একই সময়, দিল্লি সরকারও জিপে করে বস্তি অঞ্চলগুলিতে ঘুরে ঘুরে ঘোষণা করেছে, যারা বাড়ি যেতে চায়, দিল্লি থেকে তাদের জন্য বাসের বন্দোবস্ত করা হবে ৷ এর ফলে উত্তর প্রদেশ, পঞ্জাব, উত্তরাখণ্ডে কোভিড সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে৷’  মোদির মন্তব্য ঘিরেই যোগী-কেজরিওয়াল টুইটার যুদ্ধে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া ৷

আরেকটি ট্যুইট করে আদিত্যনাথ জানান, কেজরিওয়াল মিথ্যে কথা বলায় পারদর্শী ৷ যখন পুরো দেশ প্রধানমন্ত্রীজির নেতৃত্বে করোনার মতো বিশ্ব মহামারির সঙ্গে লড়ছে, তখন কেজরিওয়াল ভিন রাজ্য থেকে আসা শ্রমিকদের দিল্লি থেকে বাইরে বেরবার রাস্তা দেখিয়ে দিয়েছিলেন ৷ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে ৷ ঘুমন্ত শ্রমিকদের বাসে তুলে উত্তর প্রদেশের সীমান্তে ফেলে দিয়ে গিয়েছে ৷ উত্তর প্রদেশ সরকার বাসে করে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিরাপদে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছে ৷

যোগী আদিত্যনাথকে পালটা আক্রমণ করেন কেজরিওয়ালও। তাঁর উত্তরপ্রদেশের কাউন্টারপার্টের উদ্দেশে কেজরির তীব্র শ্লেষ, ‘যোগী শুনুন ৷ এই বিষয়টাকে ছেড়ে দিন ৷ উত্তরপ্রদেশে নদী দিয়ে মৃতদেহ ভেসে গেল অথচ আপনি কোটি কোটি টাকা খরচ করে টাইমস ম্যাগাজিনে নিজের মিথ্যে তারিফের বিজ্ঞাপন দিলেন! আপনার মতো এরকম নির্দয় ও নিষ্ঠুর ও ক্রুর শাসক আমি আর দেখিনি।’

উত্তরপ্রদেশের ভোটের প্রাক্কালে দুই মুখ্যমন্ত্রীর ব্লেমগেম থেকে স্পষ্ট উত্তেজনার পারদ কতটা তুঙ্গে উঠেছে। উল্লেখ্য, গত বছরের এপ্রিল-মে মাসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যখন আছড়ে পড়েছিল, সেই সময় দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশ মৃত্যুপুরীর চেহারা নেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.