থ্রিলার ছেড়ে কলেজ প্রেমে মন সৃজিতের (Srijit Mukherji)

Home জলসাঘর থ্রিলার ছেড়ে কলেজ প্রেমে মন সৃজিতের (Srijit Mukherji)
থ্রিলার ছেড়ে কলেজ প্রেমে মন সৃজিতের (Srijit Mukherji)

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: বছরভর সিনেমা হলের দর্শকদের জন্য বিনোদনের সম্ভার সাজিয়ে রাখার সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ (SVF) আগামী দিনে তাদের তরফে যেসব সিনেমা মুক্তি পেতে চলেছে তার একটি তালিকা রবিবার প্রকাশ করল এই প্রযোজনা সংস্থা। শুরুতেই থাকছে পরিচালক জয়দীপ মুখোপাধ্যায়ের ‘দ্য একেন’। আর তালিকার একেবারে শেষে থাকছে সন্দীপ রায়ের পরিচালনায় ‘হত্যাপুরী’। এই তালিকায় রয়েছে সৃজিত মুখোপাধ্যায় (Srijit Mukherji) পরিচালিত ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’-এর নামও।

গত কয়েক বছরে মূলত থ্রিলারেই মজে ছিলেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। এবার সেই পরিসর থেকে বেরিয়ে এসে কলেজ প্রেমের গল্প নিয়ে আসছে তাঁর নতুন ছবি ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’ (X=Prem)। উল্লেখ্য, ২১ বছর আগে গায়ক শিলাজিৎ-এর গানের অ্যালবাম প্রকাশ পেয়েছিল এই নামেই। সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই ছবিতে অভিনয় করছেন অর্জুন চক্রবর্তী, অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং বাংলা ধারাবাহিকের চেনা মুখ শ্রুতি দাস ও মধুরিমা বসাক। ছবিতে (srijit mukherjee movie) অনিন্দ্যের সঙ্গে জুটি বাঁধবেন শ্রুতি দাস। অন্যদিকে অর্জুনের বিপরীতে দেখা যাবে মধুরিমা বসাককে।

এই মুহূর্তে ‘সাবাশ মিতু’র শ্যুটিং পরবর্তী কাজ নিয়েই ব্যস্ত পরিচালক (Srijit Mukherji)। সেখানে ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার মিতালি রাজের জীবনসংগ্রাম ফুটে উঠবে। পরিচালক অবশ্য বরাবরই সব ঘরানার ছবি নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন। তাই খেলার পাশাপাশি কলেজ জীবনের প্রেমের গল্প নিয়েও সমান তালে কাজ চালাচ্ছেন তিনি। তাই এদিন তিনি ঘোষণা করলেন ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’-এর মুক্তির তারিখ। আগামী ১৩ মে বড় পর্দায় মুক্তি পাবে এই ছবি।

জানা গিয়েছে, পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের (Srijit Mukherji) এই নতুন ছবির গল্প আবর্তিত হবে নিখাদ কলেজ প্রেম নিয়ে। ২০২১ সালের জুলাই মাসে শুরু হয়েছিল ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’ (X=Prem) ছবির শুটিং। খিলাৎ বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়ী চৌধুরী, অর্ণব দত্ত এবং অদিতির মতো চরিত্ররা বলবে তাঁদের জীবনের ওঠাপড়ার গল্প। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করতে চলেছেন অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং বাংলা ধারাবাহিকের পরিচিত মুখ শ্রুতি দাস।

সৃজিতের ছবিতে কাজ করতে পেরে কেমন লাগল এই নতুন জুটির? সেই বিষয়ে অনিন্দ্য বলেন, ‘প্রথম কাজের সুযোগ, তাও আবার সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের (Srijit Mukherji) ছবিতে। ভীষণ এক্সাইটেড লাগছে।’ শ্রুতির কথায়, ‘এটা আমার কাছে বিরাট ব্যাপার যে এমন পরিচালকের সঙ্গে আমি কাজ করতে পেরেছি। সৃজিত স্যার আমাদের দু’জনের ওপরেই যে বিশ্বাস রেখেছেন, সুযোগ দিয়েছেন এটাই অনেক। এই ছবি আমার কাছে একটা ভাল স্মৃতি হয়ে থাকবে।’

 

এই ছবিতে দু’জন নতুন মুখের পাশাপাশি রয়েছেন অভিজ্ঞ অর্জুন চক্রবর্তী। তাঁর কথায়, ‘চিত্রনাট্য আমার বেশ ভাল লেগেছিল। আমার মতে বাংলা ছবিতে এমন ভাবে রোম্যান্সকে কেউ তুলে ধরেননি। আশা করি, এই ছবির রোম্যান্স এবং নাটকীয়তার মিশেল দর্শকদের ভাল লাগবে।’ সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের (Srijit Mukherji) মতো পরিচালকের সঙ্গে কাজ করে ভালই লেগছে তাঁর। পরিচালকের ওপর বিশ্বাস রাখলেই যে সব কাজ করা যায়, তাও জানালেন অভিনেতা।

ছবির আর এক অভিনেত্রী মধুরিমা বসাকের কথায়, সৃজিত মুখোপাধ্যায় সবসময়ই আমার প্রিয় পরিচালক। এমন বড় পরিচালকের সঙ্গে কাজ করা আমার কাছে বড় ব্যাপার। এই ছবিতে আমার চরিত্রটা বেশ পছন্দের। আপাতত নতুন ধারাবাহিক ‘গুড্ডি’-তে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন মধুরিমা।

নতুন ছবি ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’-এর প্রথম পোস্টার নিয়ে কী বলছেন সৃজিত? পরিচালকের (Srijit Mukherji) কথায়, ‘এই ছবিতে দু’জন নতুন মুখ নিয়ে কাজ করলাম। কারণ, এই ছবি নতুন প্রজন্মের প্রেমের গল্প বলবে, কলেজ রোম্যান্স দেখানো হবে ছবিতে। অনেকদিন ধরেই দর্শকরা অনুরোধ করেছেন আমার পরিচালিত কোনও প্রেমের ছবি দেখার, সেই জন্যেই এই ছবি করার সিদ্ধান্ত নিই’।

সময়টা গত জুন মাসের মাঝামাঝি। মহাসমারোহে মুক্তি পায় সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নতুন ছবি ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’-এর (X=Prem) পোস্টার। তারপরেই নামবিভ্রাটে জড়ান পরিচালক। ২১ বছর আগে ফিরে গেলে দেখা যাবে, এই একই নামে শিলাজিতের একটি গানের অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছিল। সৃজিতের এই ছবির কথা জানতে পেরেই শিলাজিৎ তাঁর ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট করেন। সরাসরি কারও নাম না নিয়ে তিনি জানান, অনেক পরিশ্রম করে পাশ করানো সেই নাম এখনও লোকে ‘খাচ্ছে’। শিলাজিৎ যদিও খুশিই হয়েছেন এই নাম ব্যবহারে। পরে অবশ্য সৃজিত জানিয়েছিলেন, ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’ ছবির (srijit mukherjee movie) নাম তিনি ইমপা (ইস্টার্ন ইন্ডিয়া মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশন)-র মাধ্যমে পাশ করিয়েছেন। সেখান থেকে কোনও বাধা আসেনি। অনুমতি পাওয়ার পরেই তিনি এই ছবির নামকরণ করেন।

সৃজিত অবশ্য মান ভাঙাতে নানা উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কখনও শিলাজিতের বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয়েছেন, কখনও তাঁকে খাওয়ানোর কথা বলেছেন। এমনকী শিলাজিৎ যখন নিজের পেজ থেকে লাইভ করছিলেন, সৃজিত নাকি আচমকা ক্যামেরার সামনেও চলে গিয়েছিলেন। তবে এখন অবশ্য গায়কের আর বিরক্তি নেই। হলমুখী দর্শকের মনে সৃজিতের ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’ কতটা জায়গা করে নেয়, তা দেখা এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.