‘অপরাধ’ আকর্ষণীয় চেহারা ও ব্যক্তিত্ব! রাজস্থানে খুন হলেন দলিত (Dalit) যুবক

Home দেশের মাটি ‘অপরাধ’ আকর্ষণীয় চেহারা ও ব্যক্তিত্ব! রাজস্থানে খুন হলেন দলিত (Dalit) যুবক
‘অপরাধ’ আকর্ষণীয় চেহারা ও ব্যক্তিত্ব! রাজস্থানে খুন হলেন দলিত (Dalit) যুবক

বঙ্গভূমি লাইভ ডেস্ক: মহাভারতের সময়ে সূতপুত্র হওয়ার অপরাধে কর্ণকে অস্ত্রবিদ্যা শেখাননি দ্রোণাচার্য্য। একলব্য নিষাদ হয়ে ধনুর্বিদ্যা অভ্যাস করায় তাকে নিজের ডান হাতের বুড়ো আঙুল কেটে গুরুদক্ষিণা দিতে হয়েছিল। সেই সময়ের ভারতবর্ষ থেকে আজকের ভারতবর্ষের সময়কালের দূরত্ব প্রায় দু’হাজার বছরেরও বেশি সময়। একুশ শতকের ভারতবর্ষের মানুষ নিজেদের উন্নত ও প্রগতিশীল বলে দাবি করলেও আজও এই দেশে ঘটছে দলিত হত্যার মতো ঘটনা। গত মঙ্গলবার রাজস্থানে (Rajasthan) খুন হয়েছেন একজন দলিত (Dalit) যুবক। তাঁর ‘অপরাধ’ দলিত হয়েও আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্বপূর্ণ চেহারা ছিল তাঁর। আর সেই কারণেই ভারতবর্ষের বুকে ঝরে গেলো আরও একটি তরতাজা প্রাণ।

জানা গিয়েছে, খুন হওয়া দলিত (Dalit) যুবকের নাম জিতেন্দ্রপাল মেঘওয়াল। রাজস্থানের পালি জেলার বারওয়া নামক একটি অঞ্চলে বাস করতেন তিনি। পেশায় ছিলেন একজন কোভিডকালীন স্বাস্থ্যকর্মী (COVID-19 health assistant)। কোভিড পরিস্থিতিতে বিভিন্ন গ্রামে ঘুরে ঘুরে অসুস্থ রোগীদের সেবা করেছেন তিনি, নিয়মিত অক্সিজেনের ব্যবস্থাও করেছেন। মঙ্গলবারও একটি গ্রামে রোগীদের জন্য ওষুধের ব্যবস্থা করে বালি নামক একটি অঞ্চল থেকে বারওয়ায় তাঁর নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন। সঙ্গে ছিলেন তাঁর বন্ধু হরিশ কুমার। হরিশ মোটরবাইক চালাচ্ছিলেন এবং জিতেন্দ্রপাল বাইকের পিছনের আসনে বসেছিলেন। পুলিস জানিয়েছে, দু’কিলোমিটার পথ যাওয়ার পর হঠাৎই বাইকে করে দু’জন যুবক এসে হরিশকে বাইক থামাতে বলে। এর কারণ কী, তা হরিশ কিংবা জিতেন্দ্র কেউই বুঝতে পারছিলেন না। বিষয়টি ভালো করে বোঝার জন্য হরিশ তাঁর বাইকের গতি খানিকটা কমান। কোনও কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই বাইকটি থেকে একজন যুবক জিতেন্দ্রপালের পিঠে ছুরি বসান। ছুরিকাঘাতে আহত জিতেন্দ্রপাল সঙ্গে সঙ্গেই বাইক থেকে মাটিতে পড়ে যান। সেই সময় তাঁর পেটে ও বুকে তিন-চার বার ছুরি বসায় ওই দুষ্কৃতীরা, এমনটাই জানিয়েছেন ঘটনাটির প্রত্যক্ষদর্শী হরিশ। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার আগেই মৃত্যু হয় জিতেন্দ্রপালের।

জিতেন্দ্রপালকে খুন করেই অঞ্চল ছেড়ে পালায় ওই দুষ্কৃতীরা। যদিও পরবর্তীকালে পুলিসি তৎপরতায় গ্রেফতার করা হয় দু’জন দুষ্কৃতীকেই। পুলিসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গ্রেফতার হওয়া দুই যুবকের নাম সুরজ সিংহ ও রমেশ সিংহ। বৃহস্পতিবার রাজস্থানের বার্মার জেলার গোধওয়া গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।

কেন ঘটলো এমন ধরনের ঘটনা? এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, সুরজ জিতেন্দ্রপালকে আগে থেকেই চিনতেন। তাঁদের মধ্যে অতীতের কোনও বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব (Rivalry) ছিল। সুরজ নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে নিজেকে ‘গোধওয়ার রাজা’ বলে দাবি করতেন এবং নিজেকে আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্বের অধিকারী বলে দাবি করতেন। কিন্তু জিতেন্দ্রপালের ব্যক্তিত্ব ও চেহারা তাঁর থেকে অনেকটাই ভালো ছিল, ফলে তাঁকে ঈর্ষা করতে শুরু করেন সুরজ। এর আগেও জিতেন্দ্রপালকে দু-একবার আক্রমণের চেষ্টা করেছেন সুরজ, এমনটাই জানিয়েছেন সুরজের ভাই রমেশ।

রাজস্থান পুলিসের (Police) ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে জানানো হয়েছে, গোটা ঘটনাটির মধ্যে কোনও রাজনীতির রঙ নেই। জিতেন্দ্রপালের প্রতি সুরজের ব্যক্তিগত ঈর্ষা ও আক্রোশই এই খুনের কারণ, এমনটাই মনে করছে রাজস্থান পুলিস। যদিও অনেকে দাবি করছেন, জিতেন্দ্রপালের ‘দলিত’ (Dalit) পরিচিতি হয়তো আরও ক্ষুব্ধ করে তুলেছিল সুরজকে। দলিত হওয়া সত্ত্বেও জিতেন্দ্রপালের আকর্ষণীয় চেহারা ও ব্যক্তিত্ব ঈর্ষান্বিত করেছিল সুরজকে, এমনটাই মনে করছেন অনেকে।

জিতেন্দ্রপালের পরিবারের তরফ থেকে যদিও দাবি করা হয়েছে, ‘দলিত’ (Dalit) পরিচয়ের জন্যই খুন করা হয়েছে তাঁকে। সরকারের কাছে তাঁরা দাবি করেছেন, অবিলম্বে প্রশাসনের তরফ থেকে নিরপেক্ষ তদন্ত করে জিতেন্দ্রপালের খুনীদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদ মিছিলও সংঘটিত করে জিতেন্দ্রপালের পরিবারের সদস্যরা।

রাজস্থানের বালি বিধানসভার বিধায়ক পুষ্পেন্দু সিংহ রানাওয়াত এবং মাড়ওয়াড়ের বিধায়ক খুশবীর সিং বিধানসভায় এই বিষয়টি উথ্থাপন করেন। আপাতত জিতেন্দ্রপালের পরিবারকে সরকারি সাহায্য ও ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে, এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রাজস্থান সরকারের তরফ থেকে।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই রাজস্থানের হনুমানগড়ে সংবাদ প্রণেতা ভীমরাও রামজি আম্বেদকরের ছবি লাগানোকে কেন্দ্র করে খুন হন ভীম আর্মির এক দলিত (Dalit) যুবক বিনোদ বামনিয়া। এর আগেও রাজস্থান কিংবা উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে ঘটেছে দলিত (Dalit) হত্যার মতো ঘটনা। মন্দিরে গিয়ে জল পান করার ‘অপরাধে’ কিংবা উঁচু জাতের মানুষের খাবার খাওয়ার ‘দোষে’ পিটিয়ে খুন করা হয়েছে দলিত যুবকদের। দলিত হয়ে ঘোড়া কেনার ‘অপরাধে’ কয়েকদিন আগে গুজরাটে খুন হন এক যুবক। এবার রাজস্থানে জিতেন্দ্রপাল খুনের এই ঘটনা ভারতবর্ষের দলিতহত্যার ইতিহাসে এক নতুন মাত্রা যোগ করলো। ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গায় দলিত খুনের এই ঘটনা চব্বিশের লোকসভা ভোটের আগে শাসক বিজেপির কপালেও চিন্তার ভাঁজ বাড়াচ্ছে, এমনটাও মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.